পেট্রোল ৫৫ টাকায়, ডিজেল ৫০ টাকায় মিলবে, যদি...

সরকারও এ বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে বলে জানান নিতিন গডকড়ি। তাঁর কথায়, ধান-গমের খড়, আঁখের ছিবড়ে এবং অন্যান্য বর্জ্য দিয়ে জৈব জ্বালানি তৈরি করতে হাব তৈরি করা হচ্ছে

Updated: Sep 11, 2018, 04:53 PM IST
পেট্রোল ৫৫ টাকায়, ডিজেল ৫০ টাকায় মিলবে, যদি...
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: একদিন পেট্রোল ৫৫ টাকায়, ডিজেল ৫০ টাকায় পৌঁছবে যদি বিকল্প জ্বালানির ব্যবস্থা করতে পারবে দেশ। পেট্রোল-ডিজেলের লাগাতার মূল্যবৃদ্ধির মধ্যে এমনই আশার বাণী শোনালেন কেন্দ্রীয় সড়ক ও পরিবহণমন্ত্রী নিতিন গডকড়ি। ছত্তিসগড়ের রায়পুর থেকে দুর্গ পর্যন্ত উড়ালপুল-সহ একাধিক নির্মাণের ভিত্তি স্থাপন করে সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, জৈব জ্বালানি উত্পাদনের কেন্দ্র হতে পারে ছত্তিসগড়।

আরও পড়ুন- তেলেঙ্গানায় খাদে বাস পড়ে মৃত্যু ৩২ জন তীর্থযাত্রীর

নিতিন গডকড়ির যুক্তি, ছত্তিসগড়ে ধান, গম, ডাল, আখ এবং বিভিন্ন শস্য প্রচুর পরিমাণে উত্পাদিত হয়। কৃষির উত্পাদনের হার যথেষ্ট ভাল। জৈব জ্বালানির হাবের আদর্শ জায়গা ছত্তিসগড়। বায়োটেকনোলজির বিশেষজ্ঞরা যদি রায়পুরে হাব তৈরির চিন্তাভাবনা করে, এক দিন রায়পুরই জৈব জ্বালানিতে গোটা দেশকে দিশা দেখাবে। নিতিনের আরও যুক্তি, পেট্রোলিয়ামের উপর নির্ভরতা কমাতে ইথানল, মিথানল, জৈব জ্বালানি এবং সিএনজি-র ব্যবহার আরও বাড়াতে হবে। নিতিন বলেন, “৮ লক্ষ কোটি টাকা ব্যয় করে পেট্রোল-ডিজেল আমদানি করা হচ্ছে। এর দাম ক্রমশ বেড়েই চলেছে। ডলার পিছু টাকার দরও পড়ছে। কিন্তু গত ১৫ বছর ধরে কৃষক, আদিবাসী মানুষদের বলে আসছি আরও বেশি করে ইথানল, মিথানল, জ্বালানি তেল উত্পাদন করা উচিত। জৈব জ্বালানি দিয়ে আমরা বিমানও ওড়াতে পারি।”  

আরও পড়ুন- বুঝুন কাণ্ড! নিজা়মের সোনার টিফিনবক্সে প্রতিদিন খাবার খেত চোরেরা

সরকারও এ বিষয়ে চিন্তাভাবনা করছে বলে জানান নিতিন গডকড়ি। তাঁর কথায়, ধান-গমের খড়, আঁখের ছিবড়ে এবং অন্যান্য বর্জ্য দিয়ে জৈব জ্বালানি তৈরি করতে হাব তৈরি করা হচ্ছে। আগামী দিনে লিটার পিছু পেট্রোল ৫৫ টাকা এবং ডিজেল ৫০ টাকায় মিলবে।

আরও পড়ুন- বাজারে রয়েছে আধার নম্বর তৈরির জাল সফটওয়্যার, দাবি বিদেশি সংবাদপত্রের

নিতিনের এই মন্তব্যে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিরোধীরা। পেট্রোল-ডিজেলর দাম যেখানে আকাশ ছুঁয়েছে, আশু সুরাহা না দিয়ে নিতিন গডকড়ি দেশবাসীকে স্বপ্ন দেখাচ্ছেন বলে কটাক্ষ বিরোধীদের। উল্লেখ্য, পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে ডলার পিছু টাকার দাম পড়ছে সমান হারে। এই মুহূর্তে জোড়া ফলায় বিঁধছে কেন্দ্র। পেট্রোপণ্যের মূল্য বৃদ্ধিতে কেন্দ্রের কোনও নিয়ন্ত্রণ নেই বলে সাফ জানিয়েও দেন আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। তবে, নীতিনের এই নিদান আজ না হলেও একদিন আশার আলো দেখাবে বলে বিদ্রুপ শোনা গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও।