"দেশে করোনা আক্রান্ত ১৯ লক্ষ পার, মানুষ রুজিহীন, এসব বিষয়ে পরেও ভাবা যাবে"

রাম মন্দির নিয়ে শুভেচ্ছা জানানোয় কংগ্রেসকে নিয়ে বামেদের এহেন সমালোচনার পাল্টা জবাবও দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা শশী থারুর।

Updated By: Aug 6, 2020, 10:44 AM IST
"দেশে করোনা আক্রান্ত ১৯ লক্ষ পার, মানুষ রুজিহীন, এসব বিষয়ে পরেও ভাবা যাবে"
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ লক্ষ পার। মানুষ রুজিহীন। আমাদের এগুলো নিয়ে ভাবা উচিত। বাকি জিনিস পরেও করা যায়। বুধবার অযোধ্যা রাম মন্দিরের ভূমিপুজোর বিষয়ে এমনই মত প্রকাশ করলেন বামশাসিত কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

তিনি বলেন, আমাদের দলের তরফে আগেই নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করা হয়েছে। আলাদা করে আমার কিছু বলার নেই। খালি এটুকুই বলব যে দেশে করোনা কেসের সংখ্যা ১৯ লক্ষেরও বেশি। সেটা থেকে বের হওয়ার উপায় ভাবা উচিত্। করোনা পরিস্থিতিতে বহু মানুষ আর্থিক সংকটে পড়েছেন। এমন অবস্থায় এগুলোকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত। বাকি বিষয়গুলি নিয়ে পরেও ভাবা যাবে। 

বুধবার সকালেই রাম মন্দিরের ভূমিপুজোয় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী, রাহুল গান্ধীসহ কংগ্রেস নেতৃবৃন্দ। এ বিষয়ে তাঁর মতামত জানতে চাওয়া হলে বিজয়ন বলেন, "কংগ্রেসের নমনীয় অবস্থানে আমি একটুও অবাক হইনি, বরং এটাই তো প্রত্যাশিত। কংগ্রেস কোন পথে চলে তা সবাই জানে। রাজীব গান্ধী বা নরসীমা রাওয়ের অবস্থান কী ছিল?... ইতিহাসে সব পেয়ে যাবেন।"

শুধু তাই নয়, কংগ্রেসের ধর্মনিরপেক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, "ধর্মনিরপেক্ষতা কী, তা যদি কংগ্রেস জানত, তবে আজ দেশকে এমন দিন দেখতে হত না। কংগ্রেস সবসময়েই হালকা হিন্দুত্ববাদী হয়ে চলেছে। নয় তো সংঘ যখন বাবরি মসজিদ ভাঙতে গেল, কংগ্রেস চোখ বন্ধ করে না দেখার ভান করেছিল কেন?"

আরও পড়ুন : ভোর রাতে কোভিড হাসপাতালে বিধ্বংসী আগুন, এখনও পর্যন্ত মৃত ৮

রাম মন্দির নিয়ে শুভেচ্ছা জানানোয় কংগ্রেসকে নিয়ে বামেদের এহেন সমালোচনার পাল্টা জবাবও দিয়েছেন কংগ্রেস নেতা শশী থারুর। টুইট করে তিনি বলেন, "একটা বিষয় পরিষ্কার করে দিই, কংগ্রেস কখনও অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরির বিরোধিতা করেনি। কিন্তু বেআইনিভাবে বাবরি মসজিদ ভাঙার বিরোধিতা করেছে। ১৯৮৯ সালে মন্দির তৈরির বিকল্প স্থান হিসাবে রাজীব গান্ধী ভারতীয় হিন্দু পরিষদকে একটি বিতর্কহীন জমিও দিতে চেয়েছিলেন।"
 

বাম সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, কিছু বামপন্থী বুদ্ধিজীবীরা কংগ্রেসকে বিজেপি-পন্থী হওয়ার দাবি করছেন। হ্যাঁ, আমাদের বহু নেতা সুপ্রিম কোর্টের প্রদত্ত রাম মন্দির তৈরির রায়কে স্বাগত জানিয়েছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে তারা হিন্দু-মুসলিম বিরোধ তৈরি করছে। কংগ্রেস নেতারা মুসলিমদের বিরুদ্ধে ঘৃণাও ছড়ায়নি। তাঁরা শুধুমাত্র রামজির আদর্শকে সমর্থন করেছেন।