অভিজিৎ বামপন্থী মনোভাবাপন্ন, তাঁর তত্ত্ব খারিজ করেছেন দেশের মানুষ: পীযূষ

চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পাচ্ছেন সস্ত্রীক অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। 

Updated By: Oct 18, 2019, 07:07 PM IST
অভিজিৎ বামপন্থী মনোভাবাপন্ন, তাঁর তত্ত্ব খারিজ করেছেন দেশের মানুষ: পীযূষ

নিজস্ব প্রতিবেদন: অর্থনীতিতে নোবেলপ্রাপক অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে আখ্যা দিয়ে সমালোচনা করলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। তাঁর মতে, অভিজিতের তত্ত্ব খারিজ করেছেন দেশের মানুষ। 

চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পাচ্ছেন সস্ত্রীক অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতায় পড়াশুনো করেছেন তিনি। তাঁর বালিগঞ্জের বাড়িতে থাকেন মা। অভিজিৎকে অভিনন্দন জানিয়ে পীযূষ গোয়েল বলেন,''নোবেল পাওয়ার জন্য ওনাকে শুভেচ্ছা জানাই। কিন্তু আপনারা সকলেই জানেন, উনি বামপন্থী মানসিকতার।'' কংগ্রেসের ন্যায় প্রকল্পকে সমর্থন দিয়েছিলেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। সে কথা স্মরণ করিয়ে রেলমন্ত্রী বলেন,''উনি ন্যায় প্রকল্পের গুণগান গেয়েছিলেন। ভারতের মানুষ ওনার মতকে খারিজ করে দিয়েছে।''      

লোকসভা ভোটে শিরোনামে এসেছিল কংগ্রেসের ন্যূনতম আয় যোজনা বা ন্যায়ের প্রতিশ্রুতি। দারিদ্র সীমার নীচে থাকা মানুষকে মাসে ৬ হাজার থাকা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিল রাহুল গান্ধী। ওই প্রকল্পটির বিরোধিতা করেছিল বিজেপি। দেশের রাজকোষে টান পড়বে বলে পাল্টা প্রচার করে তারা। ন্যায় প্রকল্পে ইভিএমে লাভবান হয়নি কংগ্রেস। মেলেনি সুফলও। কিন্তু ওই প্রকল্পটি দেশের দারিদ্র দূরীকরণে সফল হতে পারে বলে মনে করেছিলেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। নোবেল জয়ের পর অভিজিৎকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তা মনে করিয়ে দিয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। টুইটারে তিনি লিখেছিলেন, ''ভারতের আর্থিক উন্নয়নে ও দারিদ্র দূর করতে ন্যায় প্রকল্পের রূপরেখা তৈরিতে সাহায্য করেছিলেন অভিজিৎ। তার বদলে এখন চলছে মোদীনীতি। যা দেশের অর্থনীতিতে ধ্বংস করছে। বাড়ছে দারিদ্র।'' 
               

নোট বাতিল থেকে দেশের অর্থনীতির বিরোধিতা করেছেন অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সে কারণে তিনি মোদী সরকারের চক্ষুশূল বলে ধারণা ওয়াকিবহাল মহলের। তার উপরে জেএনইউতে পড়াকালীন জেলও খেটেছেন অভিজিৎবাবু। প্রথম মোদী সরকারের বিমুদ্রাকরণ সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছিলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ। সদ্য মোদী জমানায় ভারতের অর্থনীতি নিয়েও সমালোচনা করেছেন। তাঁর কথায়, ''দেশের অর্থনীতিতে চাহিদা কমছে। এটা আশঙ্কার বিষয়।'' এমআইটি-তে ভাষণ দেওয়ার সময় অভিজিৎ বলেছেন, পরিসংখ্যান সঠিক, বেঠিক নিয়ে লড়াই চলছে ভারতে। যে পরিসংখ্যান সরকারের পক্ষে নয়, তা ভুল মনে করছে তারা। কিন্তু আমার মনে হয় সরকারও বুঝতে পারছে, সমস্যা রয়েছে। ক্রমশ স্লথ হচ্ছে অর্থনীতি। কতটা দ্রুতবেগে অধোগামী হচ্ছে, তা নিয়ে পরিসংখ্যানে বিভ্রান্তি রয়েছে। তবে আমার মনে হচ্ছে, বেশ দ্রুতই।''

স্বাভাবিকভাবে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নোবেলপ্রাপ্তির পর ন্যায় প্রকল্প ফের ভাসিয়ে তুলেছে কংগ্রেস। ক্ষমতায় আসলে প্রকল্পে রূপায়নে করা হবে বলে আশ্বাস দিচ্ছেন নেতারা। আর সেটা গেরুয়া শিবিরের কাছে বেশ অস্বস্তিকরই। অন্তত ঘণ্টাখানেক পর সময় নিয়ে অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নোবেল পাওয়ার শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন- ইডি হেফাজতে কিছুটা স্বস্তিতে চিদম্বরম! মিলবে বাড়ির খাবার, ওষুধ