'বেসরকারিকরণের ফলে রেলযাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্য বাড়বে, হয়রানি কমবে'

কারণ বগি বাড়তি থাকায় ওয়েটিং লিস্টের পরিমাণ কমবে।

Reported By: অধীর রায় | Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Jul 2, 2020, 11:41 PM IST
'বেসরকারিকরণের ফলে রেলযাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্য বাড়বে, হয়রানি কমবে'
ফাইল ফোটো

নিজস্ব প্রতিবেদন : ভারতীয় রেলের ১০৯টি রুটের ১৫১টি ট্রেন চালানোর দায়িত্ব ভারতীয় রেলমন্ত্রক তুলে দিচ্ছে বেসরকারি সংস্থার হাতে । কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে সরগরম রাজনৈতিক মহল । পরিস্থিতি সামাল দিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান বিনোদ কুমার যাদব । 

প্রথম থেকেই প্রশ্নবাণে জর্জরিত বিনোদ কুমার যাদব বলেন , "আরও অতিরিক্ত ৫ শতাংশ ট্রেন বেসরকারিকরণ করে যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্য দেওয়া হবে ।"  তাহলে কি ১০৫ শতাংশ ট্রেন চালাবে রেল? যেখানে রেলের ট্র্যাক নিয়ে নানা সমস্যার কথা বারবার বলা হচ্ছে । এরপরই প্রশ্ন উঠে আসে গরীবরা কি এই সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে? চাপের মুখে পড়ে প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসে রেল বোর্ডের চেয়ারম্যানের মুখ থেকে। তখন তিনি বলেন , "গরীবদের নিয়ে অত ভাবনার কী আছে? ৯৫ শতাংশ ট্রেন তো তাদের জন্য রইল। ৫ শতাংশ ট্রেনকে আমরা বেসরকারি সংস্থার হাতে দিয়ে যাত্রীদের নানান সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করছি ।" 

অর্থাত্ আগে যে তথ্য রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান দিয়েছিলেন তা কি বিতর্ক চাপা দিতে বলেছিলেন? কী সমস্যা মিটবে? এই প্রশ্নের উত্তরে বিনোদ কুমার যাদব জানান, যতটা স্বাচ্ছন্দ্য এখন যাত্রীরা পান, তার থেকে বেশি স্বাচ্ছন্দ্য পাবেন। সবচেয়ে বড় কথা যাত্রীর হয়রানি কম হবে। কারণ বগি বাড়তি থাকায় ওয়েটিং লিস্টের পরিমাণ কমবে। ২০২৩ সালের এপ্রিলের মধ্যেই এই কাজ শেষ হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন রেল বোর্ডের চেয়ারম্যান।

আরও পড়ুন, হাওড়া ক্লাস্টারের কোন কোন রুটের ট্রেন বেসরকারি সংস্থার হাতে যাচ্ছে জেনে নিন