গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন সচিন! কোন্দল সামলাতে গেহলট-পাইলটকে ডাক দিল্লিতে!

 কংগ্রেসের ওই অভিযোগের পাল্টা দিয়েছে বিজেপি। বিজেপির রাজ্য সভাপতি সতীশ পুনিয়া বলেছেন, কংগ্রেসের ভেতরে বিপুল কলহ। দল টিকিয়ে রাখাই এখন মুসকিল

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Jul 12, 2020, 01:45 PM IST
গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন সচিন! কোন্দল সামলাতে গেহলট-পাইলটকে ডাক দিল্লিতে!
ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজস্থানে জমে উঠেছে রাজনৈতিক নাটক।

শনিবারই মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট অভিযোগ করেছিলেন, টাকা ছড়িয়ে কংগ্রেস ও নির্দল বিধায়ক কিনে রাজ্যে কংগ্রেস সরকারকে ফেলে দিতে চাইছে বিজেপি। চব্বিশ ঘণ্টা না গড়াতেই অশোক গেহলট শিবিরের আরও অভিযোগ, ভেতরে ভেতরে গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন সচিন পাইলট। ফলে মধ্যপ্রদেশে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পর সচিন পাইলটও কংগ্রেস শিবির ছাড়ছেন কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেল।

আরও পড়ুন-জয়া, ঐশ্বর্য, আরাধ্যার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ, জানাল নানাবতী হাসপাতাল

এদিকে, রাজস্থান কংগ্রেস সূত্রে খবর, দলের এই সমস্যা নিয়ে দিল্লির হস্তক্ষেপ চেয়েছেন সচিন পাইলট। তাঁর অভিযোগ, উপমুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তাঁকে এড়িয়ে চলছে দল। সংবাদমাধ্যমের খবর, রাজস্থানের দুই শীর্ষ নেতাকেই ডেকে পাঠাতে পারে হাইকমান্ড।

শনিবার অশোক গেহলট দলের একটি বৈঠকে ডেকেছিলেন নিজের বাসভবনে। সেই বৈঠকে যাননি সচিন পাইলট। এদিনই এক সাংবাদিক বৈঠক ডেকে মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট অভিযোগ করেন, রাজস্থানে কংগ্রেস সরকাকে ফেলে দেওয়ার চক্রান্ত করছে বিজেপি।

কীভাবে?

গেহলের দাবি, দেশ যখন করোনা সংক্রমণ নিয়ে আতঙ্কে কাঁটা সেইসময় রাজ্যের বিধায়কদের বিপুল টাকা দিয়ে কেনার চেষ্টা করছে বিজেপি।  একজন বিধায়ককে ১৫ কোটি টাকা পর্যন্ত দেওয়া হচ্ছে।

গেহলট বলেন, রাজ্য সরকার যখন করোনার সঙ্গে লড়াই করার আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছে, সেসময় রাজ্য সরকারকে ক্রমাগত বিপাকে ফেলার চেষ্টা করে চলেছে বিজেপি। দেশের মানুষের জানা উচিত, রাজ্যে কংগ্রেস একাই সংখ্যাগরিষ্ঠ। তার মধ্যেই বিজেপি আপ্রাণ চেষ্টা করছে কীভাবে এই সরকারকে ফেলা যায়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ রাজস্থানে কংগ্রেস সরকারকে সহ্য করতে পারছে না। তাই তাঁরা ষড়যন্ত্র করছেন কীভাবে সরকার ফেলা যায়।

আরও পড়ুন-করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি অমিতাভ বচ্চন! এখন কেমন আছেন, জানালেন চিকিত্সক

এদিকে, কংগ্রেসের ওই অভিযোগের পাল্টা দিয়েছে বিজেপি। বিজেপির রাজ্য সভাপতি সতীশ পুনিয়া বলেছেন, কংগ্রেসের ভেতরে বিপুল কলহ। দল টিকিয়ে রাখাই এখন মুসকিল। তাই বিজেপির নামে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলছে।