জুলাইয়ে বাদল অধিবেশন, ‘ভার্চুয়াল পার্লামেন্টের’ পথে হাঁটবে দেশ?

কেন্দ্রই জানিয়েছে, জ়ুম অ্যাপে তথ্যের নিরাপত্তা নেই। অধিকাংশ সার্ভার চিনে থাকায় তথ্য ফাঁস হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে

Reported By: জ্যোতির্ময় কর্মকার | Edited By: সোমনাথ মিত্র | Updated By: Jun 10, 2020, 12:44 PM IST
জুলাইয়ে বাদল অধিবেশন, ‘ভার্চুয়াল পার্লামেন্টের’ পথে হাঁটবে দেশ?
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: কানাডা, ব্রিটেনের পথেই কি হাঁটতে চলেছে ভারত! জুলাইয়ে বাদল অধিবেশন। রাজ্যসভা এবং লোকসভায় সামাজিক দূরত্ব মেনে সাংসদদের বসা কার্যত অসম্ভব। তাই বিকল্প পথ খুঁজতে আলোচনায় বসেন লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যান ভেঙ্কাইয়া নায়ডু। উপস্থিত ছিলেন দুই কক্ষের সেক্রেটারি জেনারেলস। আলোচনা হয়, সংসদের সেন্ট্রাল হল এবং দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে অধিবেশন বসানো যায় কিনা!

কী পরিকল্পনা করা হচ্ছে?

** সেন্ট্রাল হল ও দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে দুই কক্ষের অধিবেশন চালানো যায় কিনা!

** প্রয়োজনে একদিন অন্তর দুই কক্ষের অধিবেশন বসানো যেতে পারে। সব দিক খতিয়ে দেখার জন্য দুই অফিসারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সূত্রের খবর, যথার্থ সামাজিক দূরত্ব মেনে সেন্ট্রাল হলে রাজ্যসভার সদস্যদের বসানোয় কোনও অসুবিধা হবে না। এক জনের বেশি আসনের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। কিন্তু লোকসভায় সদস্যদের সেন্ট্রাল হল এবং বিজ্ঞান ভবনে বসানো সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন আধিকারিকরা। ন্যূনতম এক মিটার দূরত্ব রেখে বসানো হলেও সম্ভব নয়।

ভার্চুয়াল পার্লামেন্ট:

এই মুহূর্তে সেন্ট্রাল হল কিংবা বিজ্ঞান ভবনে অধিবেশন না করানো গেলে ভার্চুয়াল পার্লামেন্ট করা যায় কিনা, তা নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। তবে, প্রশ্ন উঠছে প্রযুক্তিগত জটিলতা নিয়ে। লোকসভা এবং রাজ্যসভার অধিবেশন অনলাইনে চালানোর মতো প্রযুক্তি এখনও পর্যন্ত নেই। অন্যদিকে, অধিকাংশ সাংসদ প্রযুক্তি ব্যবহারে সাবলীল নন। সূত্রের খবর, কিছু সাংসদকে পার্লামেন্ট উপস্থিত করানো যেতে পারে। আর যাঁরা প্রযুক্তিগত দিক থেকে সাবলীল, তাঁরা ঘরে বসেই আলোচনায় অংশগ্রহণ করতে পারেন।

কানাডা ও ব্রিটেন:

করোনা পরিস্থিতিতে বাধ্য হয়েই ভার্চুয়াল পার্লামেন্টের পথে হাঁটে কানাডা এবং ব্রিটেন। গত ১৭ মে অনলাইনে অধিবেশন শুরু হয় কানাডার পার্লামেন্টে। সে দেশের প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো খোদ করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। জানা যায়, প্রত্যেক মঙ্গলবার এবং বৃহস্পতিবার ৩৩৮ সাংসদ জু়ম অ্যাপে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

ব্রিটেনও ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ে হাউস চলছে। নাম দেওয়া হয়েছে ‘ভার্চুয়াল হাউস অব কমনস’। গত এপ্রিলে এই প্রক্রিয়ায় অধিবেশন শুরু হয়। ব্রিটেনও জ়ুম অ্যাপেও ভার্চুয়াল পার্লামেন্ট চালাচ্ছে।

জু়ম অ্যাপের নিরাপত্তা:

কেন্দ্রই জানিয়েছে, জ়ুম অ্যাপে তথ্যের নিরাপত্তা নেই। অধিকাংশ সার্ভার চিনে থাকায় তথ্য ফাঁস হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। প্রায় সব দেশ যখন সরাকরিভাবে ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ে জ়ুম অ্যাপ ব্যবহার করছে, কেন্দ্র সে পথে হাঁটবে কিনা সংশয় রয়েছে। লোকসভা বা রাজ্যসভা অনলাইনে চালানোর মতো দেশীয় প্রযুক্তি সরকারের হাতে আছে কিনা জানা যায়নি।

আরও পড়ুন- লক্ষ্য একুশ, 'ভার্চুয়াল সভায়' পরবর্তী নির্বাচনের রূপরেখা স্পষ্ট করলেন শাহ

অধীর রঞ্জন চৌধুরীর প্রস্তাব:

কয়েক দিন আগে লোকসভার কংগ্রেসের দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী প্রস্তাব দিয়েছিলেন, স্ট্যান্ডিং কমিটির বৈঠক অনলাইনে চালু করার। সে প্রস্তাব গ্রাহ্য হয়নি অধ্যক্ষের দফতর থেকে। সংসদের নিয়ম অনুযায়ী, এই সব কমিটির বৈঠক গোপনীয়তা অবলম্বনের প্রয়োজন। অনলাইনে করা হলে তথ্য ফাঁস হওয়ার আশঙ্কা থাকতে পারে।