১০ বছর পর নিজের ভুল স্বীকার করলেন Ian Bell! মেনে নিলেন MS Dhoni র মহানুভবতা

ক্রিকেট ইতিহাসে ইয়ান বেলের রান-আউট অধ্যায় ভোলেননি অনেকেই।

Updated By: May 14, 2021, 01:51 PM IST
১০ বছর পর নিজের ভুল স্বীকার করলেন Ian Bell! মেনে নিলেন MS Dhoni র মহানুভবতা

নিজস্ব প্রতিনিধি: সালটা ২০১১, এমএস ধোনির (MS Dhoni) নেতৃত্বে দ্বিতীয় বারের জন্য বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হলো ভারত। পঞ্চাশ ওভারের ফর্ম্যাটে শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপা মাথায় নিয়েই ধোনি অ্যান্ড কোং পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে সেবছরই ইংল্যান্ডে গিয়েছিল। চারটি টেস্ট, পাঁচটি ওয়ান-ডে ও একটি কুড়ি ওভারের ম্যাচ ছিল সিরিজে। সেবার ভারত কোনও দাগ কাটতে ব্রিটিশ মুলুকে। জয়হীন ভারত ফিরেছিল দেশে। কিন্তু ভারতের টেস্ট বিপর্যয়ের মাঝেও এমন এক মন ছুঁয়ে নেওয়া ঘটনা ঘটেছিল ধোনির সৌজন্যে, যা আজও আলোচিত হয় বাইশ গজে। 

ক্রিকেট ইতিহাসে ইয়ান বেলের (Ian Bell) রান-আউট অধ্যায় ভোলেননি অনেকেই। তৃতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনে ঠিক চা-বিরতির আগের ঘটনা। ১৩৭ রানে ব্যাট করছিলেন বেল। সঙ্গে ছিলেন অইন মর্গ্যান (Eoin Morgan)। মর্গ্যান লেগ-সাইডের দিকে শট নিয়ে ভেবেছিলেন যে, চার হয়ে গিয়েছে। তিনি বেলকে নিয়ে প্যাভিলিয়নের দিকে হাঁটা দিতে শুরু করে দেন ব্রেক-টাইম ভেবে। কিন্তু প্রবীণ কুমার বাউন্ডারি লাইনের আগে থেকে বল তুলে নিয়ে ছুড়ে দেন ধোনিকে লক্ষ্য করে। ধোনি সেই বল অভিনব মুকুন্দের দিকে এগিয়ে দেন, পরিণতি বেলের রান-আউট। 

আরও পড়ুন: মুম্বই থেকে গোয়া যাচ্ছিলেন Prithvi Shaw, গাড়ি আটকাল পুলিস! কিন্তু কেন?

এরপরে খেলা থেমে থাকে দীর্ঘক্ষণ। ইংরেজ সমর্থকরা ভারতকে বিদ্রুপ করতে শুরু করে দেন মাঠের মধ্যে। দীর্ঘ আলোচনার পর আম্পায়াররা বেলকে আউট দেওয়ার সিদ্ধান্ত দেন। কিন্তু ধোনি বেলকে ফিরিয়ে আনেন ক্রিজে। ঘটনাচক্রে তিনি আউট হন ১৫৯ রানে। ধোনির এই খেলোয়াড়ি স্পিরিটের জন্য গতবছর শেষের আইসিসি তাঁকে 'স্পিরিট অফ ক্রিকেট' ('ICC Spirit of Cricket Award') দিয়েছিল। আজ প্রায় ১০ বছর পর বেল বলছেন, তিনি আউট ছিলেন। স্বীকার করে নিলেন এমনটা তাঁর করা উচিত হয়নি।

দ্য গ্রেড ক্রিকেটার্স ইউটিউব চ্যানেলে বেল সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে বলেন, “আমি যখন ওই ঘটনার কথা মনে করি তখন ভাবি, হয় আমার নিশ্চই খুব খিদে পেয়েছিল, নয় চার হয়ে গিয়েছি বলেই প্যাভিলিয়নে ফিরছিলাম। ধোনিকে আইসিসি স্পিরিট অফ দ্য গেম বা এরকম কিছু একটা পুরস্কার দিয়েছিল, তবে হ্যাঁ, ভুলটা অবশ্যই আমার ছিল। আমার কখনও এমনটা করা উচিত হয়নি।