‘আমি নতুন, ভুল করেছি’, নো বল বিতর্কে স্বীকারোক্তি বাংলাদেশি আম্পায়ারের

তানভিরের ভুল সিদ্ধান্তে লিটন আউট না হলেও সুবিধা করতে পারেনি বাংলাদেশ। ওই ম্যাচ ৫০ রানে হারা তাঁরা। ম্যাচ জেতার সঙ্গে সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজও ২-১-এ জিতে নেয় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

Updated By: Dec 25, 2018, 01:20 PM IST
‘আমি নতুন, ভুল করেছি’, নো বল বিতর্কে স্বীকারোক্তি বাংলাদেশি আম্পায়ারের

নিজস্ব প্রতিবেদন: স্রেফ একটা সিদ্ধান্তই তাঁকে শিরোনামে এনে দিয়েছে। শনিবার, ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে একটি নো বলের সিদ্ধান্তেই তিনি খ্যাতি অর্জন করেছেন। অবশ্যই তা সুখ্যাতি নয়। বিতর্কের শিরোমণি হয়েছেন তানভির আহমেদ। ৭২ ঘণ্টা পর, নিজের ভুল স্বীকার করে নিয়ে বাংলাদেশি আম্পায়ার তানভির আহমেদ প্রথম আলো-কে জানিয়েছেন, তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নতুন, তাঁর ভুল হয়েছে।

আরও পড়ুন- মেলবোর্নে তৃতীয় টেস্টে অস্ট্রেলিয়া দলে হ্যান্ডসকম্বের পরিবর্তে মিচেল মার্শ

বাংলাদেশের ওই পত্রিকায় নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে তানভির জানিয়েছেন, “নো বলের সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে পা ও ক্রিজের লাইন একটা ইস্যু। বোলার খুব দ্রুত লাফালে অনেক সময়ই বুঝতে অসুবিধা হয়। আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নতুন, আমার ভুল হয়েছে।” আগামিতে এমন ভুল আর হবে না, এবিষয়েও প্রত্যয়ী বাণী শোনা গিয়েছে তানভিরের গলায়। প্রথম আলো-কে তিনি জানিয়েছেন, “আমার অতীত দেখুন, কোনও খারাপ রেকর্ড নেই। এটা স্রেফ একটা ভুল। ইনশাল্লাহ, আমি ভুল সংশোধন করে ফিরে আসব। সবার জীবনেই ভাল দিন থাকে, আবার খারাপ দিনও থাকে। সেদিন (শনিবার) আমার জীবনের খারাপ দিন ছিল। আমি আর অন্য কিছু ভাবছি না। নিজের ভুল সিদ্ধান্তের কথাই মাথায় আসছে।”

আরও পড়ুন- স্মিথকে 'অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের কোহলি' বললেন ল্যাঙ্গার

উল্লেখ্য, শনিবার ক্যারিবিয়ান পেস বোলার থমাসের একটি ডেলিভারিকে নো বল বলে ঘোষণা করেছিলেন তানভির। তাঁর চোখে সেটি নো বল ছিল। পরে জায়েন্ট স্ক্রিনে দেখা যায়, থমাসের ডেলিভারি বৈধ ছিল। ওই বলেই আবার ক্যাচ দিয়ে বসেন বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান লিটন দাস। যদিও অনফিল্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত বদল করা হয়নি। ক্যারিবিয়ান ক্যাপ্টেন কার্লোস ব্রেথওয়েটের রিভিউ করার আবেদনও নাকচ করে দেওয়া হয়, যেহেতু তা আইসিসি নিয়মে নেই। তানভিরের এই ভুল সিদ্ধান্তে লিটন আউট না হলেও সুবিধা করতে পারেনি বাংলাদেশ। ওই ম্যাচ ৫০ রানে হারা তাঁরা। ম্যাচ জেতার সঙ্গে সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজও ২-১-এ জিতে নেয় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।