আইপিএল-এর ‘ব্যর্থ একাদশ’

চলতি মরসুমের আইপিএল-এ এমন না জ্বলা তারাদের সংখ্যাটা দীর্ঘ হলেও ২৪ ঘণ্টা ডট কম বেছে নিল ব্যর্থদের ‘সেরা একাদশ’। 

Updated By: May 21, 2018, 08:59 PM IST
আইপিএল-এর ‘ব্যর্থ একাদশ’

নিজস্ব প্রতিবেদন: এবারের আইপিএল ছিল ‘বেস্ট বনাম বেস্ট’-এর লড়াই। চার-ছক্কা আর হৈ হৈ-এর মধ্যেই টক্কর হয়েছে শেয়ানে-শায়েনে। এই ময়দানি লড়াইয়ে বাঘ হয়ে এসেছিলেন অনেকেই, তবে শেষমেশ বিড়াল হয়ে ফিরতে হল বেশ কিছু বড় নামকে। চলতি মরসুমের আইপিএল-এ এমন না জ্বলে ওঠা তারাদের সংখ্যাটা দীর্ঘ হলেও ২৪ ঘণ্টা ডট কম বেছে নিল ব্যর্থদের ‘সেরা একাদশ’। দেখে নিন-

গৌতম গম্ভীর- কলকাতা থেকে দিল্লি ফেরার সিদ্ধান্তটা একেবারেই ফ্লপ। ঘরে ফিরে স্বপ্নের কামব্যাক তো দূরের কথা, প্লে- অফেই নেই তাঁর দল। ব্যাটে রান নেই, এমনকী ব্যর্থতার দায় নিয়ে মাঝ পথেই অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন গৌতি। তিনি অর্ধেক আইপিল কাটিয়েছেন ডাগ-আউটে বসেই।  

ডি এ শর্ট- অস্ট্রেলিয়ার এই ব্যাটসম্যানকে এবার ৪ কোটি টাকা দিয়ে কিনেছিল রাজস্থান। বিগ ব্যাশ মাতানো এই বাঁ হাতি এবারের আইপিএল-এ অসফলদের তালিকায় শীর্ষ স্থান দখল করেছেন। ৭ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ১১৬। টাকার হিসেবে শর্টের প্রতি রানের দাম পড়েছে প্রায় ৩৫ হাজার টাকা!

অ্যারন ফিঞ্চ- প্রীতির পঞ্জাবে ৬.২০ কোটির ফিঞ্চ-কে মনে করা হয়েছিল ‘ফিনিক্স’। কাজে তা একবারের জন্যও প্রমাণ করতে পারলেন না অ্যারন ফিঞ্চ। যার ফল ভুগল দলও।

যুবরাজ সিং- এবারও ফ্লপ যুবি। পঞ্জাবের হয়ে ৮ ম্যাচে যুবরাজের মোট রান মাত্র ৬৫। হিসেব করলে দেখা যাচ্ছে, ২ কোটির যুবির প্রতি রানের মূল্য দাঁড়াচ্ছে ৩০ হাজারেরও বেশি।

কাইরন পোলার্ড- এবারের মরসুমে ঘুমই ভাঙল না এই ক্যারিবিয়ান দৈত্যের। একটা ম্যাচ জেতালেন বটে, কিন্তু গোটা আইপিএল জুড়েই চুপ ছিল পোলার্ডের ব্যাট। ৯ ম্যাচে তাঁর রান ১৩৩। বোলিংয়েও নজর কাড়তে পারেননি টি-টোয়েন্টি স্পেশ্যালিস্ট কাইরন পোলার্ড।

ঋদ্ধিমান সাহা- ৫ কোটি টাকায় বাংলার এই উইকেট কিপারকে কিনেছিল হায়দরাবাদ। এই মরসুমে তাঁর দলের উজ্জ্বল পারফরম্যান্সের মাঝে একেবারোই ফিকে শিলিগুড়ির পাপালি। ১০ ম্যাচে ঋদ্ধির ব্যাট থেকে এসেছে মাত্র ৮৭ রান। ওপেনিং করার সুযোগ পেয়েও তা কাজে লাগাতে পারেননি ঋদ্ধিমান।

অক্ষর প্যাটেল- এবারের আইপিএল নিলামে তাঁকে নিয়ে শোরগোল ফেলে দিয়েছিল পঞ্জাব। ১২.৫০ কোটি টাকায় এই বাঁ হাতি অলরাউন্ডারকে ঘরে ফিরিয়েছিনলেন প্রীতি। কিন্তু যে কারণে তাঁকে পঞ্জাব দলে ফেরান হয়েছিল তা অধরাই থেকেছে প্রীতির দলের কাছে। এই আইপিএলে ৯ ম্যাচে অক্ষরের রান ৮০, উইকেট ৩।

মিচেল জনসন- ২ কোটি দিয়ে এই অজি স্পিডস্টারকে কিনেছিল কলকাতা। স্টার্কের পাশে যাকে বেশ ধারাল বলেই মনে করেছিল অনেকে। তবে চোটের কারণ আগেই ছিটকে যান স্টার্ক। তারপর প্রত্যাশা মত পারফর্ম করতে পারেননি জনসনও। বদলে ঝলসে উঠেছেন ২০ লাখের কৃষ্ণ।

জয়দেব উনাদকাট- রাজস্থানের সব থেকে দামি ক্রিকেটারের মধ্যে অন্যতম জয়দেব। তাঁকে ১১.৫০ কোটি টাকা দিয়ে কিনেছিল রয়্যালরা। ১৪ ম্যাচে এই বোলারের সংগ্রহ ১১ উইকেট। অর্থাত্ তাঁর এক একটা উইকেটের দাম এক কোটিরও উপর।

মোহিত শর্মা- ২.৪০ কোটির মোহিত, চেন্নাইয়ে যতটা উজ্জ্বল ছিলেন, এবারের আইপিএলে পঞ্জাবের হয়ে তাঁকে ঠিক ততটাই ফ্যাকাশে লেগেছে।

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল- দিল্লির কোচ রিকি পন্টিং তাঁর উপর ভরসা রাখলেও দলকে একেবারেই ভরসা জোগাতে পারেননি ৯ কোটির ম্যাক্সওয়েল। ১২ ম্যাচে ৫ উইকেট এবং ১৬৯ রান সংগ্রহ করতে পেরেছেন এই অজি তারকা।