নেদারল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্ব হকি লিগে ব্রোঞ্জ পদকের মালিক ভারত

সকালে রাহানের সেঞ্চুরি, সন্ধ্যেতে সরদার সিংহদের ৮ গোলের ম্যাজিক, একেবারে আদর্শ 'উইক এন্ড'। সোমবার কোটলার মাঠে ৩-০-তে সিরিজ জয়ের হাতছানি।

Updated By: Dec 6, 2015, 09:55 PM IST
নেদারল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্ব হকি লিগে ব্রোঞ্জ পদকের মালিক ভারত

ওয়েব ডেস্ক: সকালে রাহানের সেঞ্চুরি, সন্ধ্যেতে সরদার সিংহদের ৮ গোলের ম্যাজিক, একেবারে আদর্শ 'উইক এন্ড'। সোমবার কোটলার মাঠে ৩-০-তে সিরিজ জয়ের হাতছানি। তার আগেই রবিবারের সন্ধ্যা যেন 'দিওয়ালি'। আকাশ ভরেছে আলোর রোশনাইতে। তবে কারণটা ক্রিকেট নয়। বিশ্ব হকি লিগে নেদারল্যান্ডকে হারিয়ে রাতের নীল আকাশে উড়ল তেরঙ্গা। জ্বল জ্বল করে উঠল গেরুয়া, সাদা, সবুজ-এই তিন রঙ। ইতিহাসে আরও একবার ভারত। সোমবার ক্রিকেট ইতিহাস রচনার আগেই ভারতের ক্রীড়া পাঠ্যে হকির অধ্যায় লেখাটা বোধহয় সম্পূর্ণ।

রবিবার দুপুরটাতে টিভির পর্দায় চোখ রাখলেই চোখের পাতা দুটো নিজেদের আলিঙ্গন করে নিচ্ছিল বারবার। অশ্বিন, জাদেজাদের স্পিন যেন কোটলার ২২ গজে ঘুম পাড়ানি ওষুধ। বিশ্বের তাবড় খেলোয়াড়দের প্রথম সারিতে থাকা আমলা, এবি ডিভিরা যেন পিচে পিকনিক করতে নেমেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকা দলের অধিনায়ক হাসিম আমলা ৫৫ মিনিট ধরে ক্রিজে, তখনও খাতাই খোলেননি। প্রথম রান এল ৪২ বলে। আর এবি ডিভি, যাকে কোথায় বল করতে হবে এইটা ভেবেই মাথার চুল ছিড়তে হয় বোলারদের, তিনি নিজের খাতা খুললেন ৩২ নম্বর বলে। ৭২ ওভার ব্যাট করে দক্ষিণ আফ্রিকার রান ৭২। বোঝাই যাচ্ছে, ইতিহাসে এমন ধীর গতির ক্রিকেট খুব কমই আছে। মেরিনহো থাকলে তিনিও বোধহয় নিজেকে প্রোটিওদের থেকে বেশি 'ফাস্ট' বলে ব্যাখ্যা করতেন।

কিন্তু সন্ধ্যা ৬টা বেজে ৩০ মিনিটে একটা সাদা বল নিয়ে ২২টা খেলোয়াড় যখন আরেকটা মাঠে অন্য একটা খেলা শুরু করল তার আমেজটাই আলাদা। খেলাটার নাম হকি। সবুজ ঘাস, সাদা বল আর নেদারল্যান্ডের ১১ জন বিপক্ষে ভারতের ১১ জন। দশ দশটা গোল। ভারত-৫। নেদারল্যান্ড-৫। ৯০ মিনিটের খেলায় পলক ফেলতে না ফেলতেই গোল। বুলেট গতিতে নেটে জড়াচ্ছে বল। শেষ পর্যন্ত নির্দিষ্ট সময়ে খেলার ফল ৫-৫ থাকায় নিষ্পত্তি করতে শুট আউটে দুই দল। ভারত-৩ নেদারল্যান্ড-২। চ্যাম্পিয়ন ভারত। বিশ্ব হকি লিগে ব্রোঞ্জ পদক জিতল সরদার সিংহের দল। আর এই ফলেই হকির বিশ্ব র‍্যাঙ্কিংয়ে দুই ধাপ ওপরে উঠে এল ভারত। ৬ থেকে ৪ নম্বরে পৌঁছল ভারত।