পাণ্ডিয়া-রাহুলকে আবিলম্বে ক্রিকেটে ফেরানো হোক দাবি বোর্ড প্রেসিডেন্টের

তদন্ত যেমন চলছে চলুক, কিন্তু ক্রিকেটের বাইশ গজে খেলার সুযোগ দেওযা হোক হার্দিক, রাহুলকে।

Updated By: Jan 20, 2019, 04:25 PM IST
পাণ্ডিয়া-রাহুলকে আবিলম্বে ক্রিকেটে ফেরানো হোক দাবি বোর্ড প্রেসিডেন্টের

নিজস্ব প্রতিবেদন : কফি উইথ করণ-শোতে মহিলাদের নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে নিজেরাই নিজেদের বিপদ ডেকে এনেছেন ভারতীয় দলের দুই ক্রিকেটার হার্দিক পাণ্ডিয়া এবং কেএল রাহুল। এবার তাঁদের সেই তদন্ত সুপ্রিম কোর্টে।পাণ্ডিয়া ও রাহুল কবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবেন, তার কোনও ঠিক নেই। এই গড়িমসি নিয়েই বোর্ডের কার্যকরী প্রেসিডেন্ট সিকে খান্না চিঠি লিখেছেন কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটরের কাছে। তাঁর দাবি, তদন্ত যেমন চলছে চলুক, কিন্তু ক্রিকেটের বাইশ গজে খেলার সুযোগ দেওযা হোক হার্দিক, রাহুলকে।

আরও পড়ুন - কর ফাঁকি, ২৩ মাসের জেল হতে পারে রোনাল্ডোর!

কফি উইথ করণ শো-তে মহিলাদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের জেরে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড পাণ্ডিয়া ও রাহুলকে আপাতত নির্বাসনে পাঠিয়েছে। শো-কজের জবাব দেওয়ার পাশাপাশি নিঃশর্ত ক্ষমাও চেয়েছেন দুই ক্রিকেটার। ইতিমধ্যে বোর্ডের সিইও রাহুল জোহরি দুই ক্রিকেটারের সঙ্গে ফোনে কথাও বলেছেন। অস্ট্রেলিয়ায় একদিনের সিরিজে খেলা হয়নি। পরিস্থিতি যা তাতে  নিউজিল্যান্ড সফরেও হয়তো খেলা হবে না পাণ্ডিয়া-রাহুলের। ইতিমধ্যেই পাণ্ডিয়া-রাহুলের পাশে দাঁড়িয়েছেন অনেক প্রাক্তন ক্রিকেটারই। এবার বোর্ডের কার্যকরী সভাপতি সিকে খান্নাও তাঁদের পাশেই দাঁড়াচ্ছেন।

আরও পড়ুন - হার্দিক-রাহুলের লিঙ্গ বৈষম্যমূলক মন্তব্যে ‘নারীবাদী’ স্বরা ভাস্করের মত কী?

বোর্ডের কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটরের কাছে আবেদন জানিয়ে এক চিঠিতে বোর্ডের কার্যকরী প্রেসিডেন্ট লিখেছেন, "ওরা ভুল করেছে। তার জন্য ওদেরকে নির্বাসনেও পাঠানো হয়েছে। অস্ট্রেলিয়া থেকে সিরিজ না খেলে দেশে ডেকে আনা হয়েছে। ইতিমধ্যেই তারা নিঃশর্ত ক্ষমাও চেয়ে নিয়েছে বোর্ডের কাছে।" এরপর তিনি আরও লেখেন, " আমার মনে হয়, তদন্ত যেমন চলছে সেই রকম চলুক। কিন্তু ক্রিকেটে দুজনকে ফিরিয়ে নেওয়া হোক। দুজনকেই যত দ্রুত সম্ভব নিউ জিল্যান্ড সফরে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হোক।" হার্দিকরা যে মন্তব্য করেছেন ওই শো-তে গিয়ে সেটা কোনওভাবেই মেনেয় যাওয়া যায় না। কিন্তু বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে উঠতি ক্রিকেটারদের ভুল শুধরে দ্রুত সুযোগ দেওয়া উচিত্ বলেই মনে করেন সিকে খান্না।