অলিম্পিক্সের 'সেক্স সংস্কৃতি'! উদ্দাম অন্তরঙ্গতার অভিজ্ঞতা শোনালেন এই তারকারা

মিলনের খেলা চলে কখনও প্রকাশ্যে তো কখনও গোপনেও!

Updated By: Jul 27, 2021, 04:55 PM IST
 অলিম্পিক্সের 'সেক্স সংস্কৃতি'! উদ্দাম অন্তরঙ্গতার অভিজ্ঞতা শোনালেন এই তারকারা

নিজস্ব প্রতিবেদন: 'গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ' বলা হয় অলিম্পিক্সকে। মাল্টি স্পোর্টসে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ইভেন্টে 'সেক্স' নাকি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ! অনেকে মনে করেন সেক্স ছাড়া অলিম্পিক্স অসম্পূর্ণ। অলিম্পিক্সের মধ্যে নারী-পুরুষের মিলনের খেলা চলে কখনও প্রকাশ্যে তো কখনও গোপনেও!

চলতি টোকিও অলিম্পিক্স শুরুর আগেই খবরের শিরোনামে এসেছিল কার্ডবোর্ডের তৈরি 'অ্যান্টি-সেক্স' খাট! অনেকের মতে এবার অলিম্পিক্সে সঙ্গম থেকে প্রতিযোগীদের দূরে রাখার জন্যই নাকি আয়োজকদের ভাবনায় এসেছে এরকম খাটের কথা। তবে সেক্স থেকে অ্যাথলিটদের দূরে রাখার ভাবনা হেসে উড়িয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন অলিম্পিয়ান সুজান তিয়েডকে।

আরও পড়ুন: Tokyo Olympics 2020: বক্সিংয়ের কোয়ার্টার ফাইনালে দেশের মেয়ে Lovlina Borgohain

৯২ ও ২০০০ অলিম্পিক্সে অংশ নেওয়া লং জাম্পার নিজের অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিয়েছেন। সুজান বলেন, “টোকিও অলিম্পিক্সে সেক্স নিষিদ্ধ শুনেই আমি ভয়ঙ্কর হেসছিলাম। এসব কোনও কাজেই দেয় না। গেমস ভিলেজে সেক্স বরাবর একটা ইস্যু। বহু মানুষ সেক্স করার জন্য মরিয়া হয়ে থাকে। একের পর এক পার্টিও হতে থাকে। এর সঙ্গে অ্যালকোহলও চলে আসে। এমনকী অনেক সময় ঘুমানোও যায় না ঠিক ভাবে। অনেকে ভোরের দিকে সেক্স করে।"

অলিম্পিক্সে অংশ নিতে এসেই সুজেনের দেখা হয়ে গিয়েছিল জো গ্রিনের সঙ্গে। তিনিও লং জাম্পার। বর্তমানে সুজেন ও জো বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ। সুজান বলছেন, “সেক্স করলে শরীর রিচার্জ হয়ে যায় এনার্জি চলে আসে ভিতর থেকে। অলিম্পিক্সের রুমমেটরাও খুব সাহায্য করে। তারা ব্যাপারাটা বোঝে এবং সেক্স করার জন্য অন্য রুমমেটকে ঘর ছেড়ে দেয়।”

আমেরিকার দু'বারের স্বর্ণপদক জয়ী গোলকিপার হোপ সোলো ২০১২ সালে ইএসপিএন-এ দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অলিম্পিক্সে সেক্সের অভিজ্ঞতা শুনিয়ে ছিলেন। তিনি বলেছিলেন, “অলিম্পিক্সে প্রচুর সেক্স হয়। আমি লোককে প্রকাশ্যে সেক্স করতে দেখেছি। কেউ ঘাসের ওপর শুয়ে তো কেউ দু'টো বিল্ডিংয়ের ফাঁকে ঢুকে সেক্স করে।”

আরও পড়ুন: Mirabai Chanu: খুদে 'চানু'তে মোহিত দেশের 'রুপোর মেয়ে' নিজেই, দেখুন ভিডিয়ো

নিরাপদ যৌনতা অর্থাৎ 'সেফ সেক্স' ও এইচআইভি প্রতিরোধের সচেতনা বাড়ানোর লক্ষ্য থাকে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটিরও। সেই ১৯৮৮ সালে সিওল অলিম্পিক্সে বিনামূল্যে ৮৫০০ কনডোম বিতরণ করা হয়েছিল। গতবছর রিওতে রেকর্ড ৪ লক্ষ ৫০ হাজার কন্ডোম দেওয়া হয়েছিল তবে, টোকিও অলিম্পিক্সে দেড় লক্ষ কন্ডোম দেওয়ার কথা ভেবেছেন আয়োজকরা। এই কয়েক বছরের কন্ডোম বিতরণের পরিসংখ্যানই বলে দেয় যে, অলিম্পিক্সের সঙ্গে সেক্স জুড়েই রয়েছে।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)