'বাপ বাপ হোতা হ্যায়' বলেছিলেন বীরু! শেহবাগের গায়ে হাত দেওয়ার কথা বললেন আখতার

রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস কিন্তু বারবার এই ঘটনার কথা অস্বীকার করে এসেছেন।

Updated By: Aug 2, 2020, 01:58 PM IST
'বাপ বাপ হোতা হ্যায়' বলেছিলেন বীরু! শেহবাগের গায়ে হাত দেওয়ার কথা বললেন আখতার

নিজস্ব প্রতিনিধি- বছর কয়েক আগে বীরেন্দ্র শেহবাগ এক অনুষ্ঠানে শাহরুখ খানকে বলেছিলেন সেই ঘটনার কথা। এক ঘর লোকের সামনে শেহবাগ বলেছিলেন, ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে একবার তিনি শোয়েব আখতারকে বলেছিলেন, বাপ বাপ হোতা হ্যায়! সেই ঘটনার পর কেটে গিয়েছে কয়েক বছর। যদিও এমন কোনও ঘটনা সত্যি ঘটেছিল কি না কারও জানা নেই। এমনকী শেহবাগ এই ঘটনার কথা বলেছেন কয়েক বছর হয়ে গিয়েছে। তবে এই ইস্যু যেন এখনও আখতারের পিছু ছাড়তে চাইছে না। এর আগেও অনেকবার আখতারকে শুনতে হয়েছে, ''আপনাকে কি সত্যিই মাঠে এমন কোনও কথা বলেছিলেন শেহবাগ?''

রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস কিন্তু বারবার এই ঘটনার কথা অস্বীকার করে এসেছেন। শেহবাগ সেদিন বলেছিলেন, কোনও এক ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে তিনি প্রায় ২০০-র কাছাকাছি চলে গিয়েছিলেন। সেই সময় আখতার বারবার তাঁকে শর্ট বল ও বাউন্সার দিচ্ছিলেন। যাতে শেহবাগ হুক শট খেলতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেন! কিন্তু বীরু সেই ফাঁদে পা দিচ্ছিলেন না। সেই সময় আখতার তাঁকে স্লেজিং করতে শুরু করেন। শেহবাগ সেই সময় আখতারকে বলেন, ও তেরা বাপ খরা হ্যায় নন-স্ট্রাইকিং এন্ড পে। উসকো বোল ও মরকে দিখায়েগা। বাংলায় যার তর্জমা করলে দাঁড়ায়, নন স্ট্রাইকিং এন্ডে তোর বাবা দাঁড়িয়ে আছে। ওকে বল ও শট মেরে দেখাবে! এর পরই নাকি সচিনকে বাউন্সার দেন আখতার। আর সচিন তাতে সটান ছক্কা হাঁকিয়ে দিন। তার পর বীরু এগিয়ে যান এবং আখতারকে বলেন, বেটা বেটা হি হোতা হ্যায়। অউর বাপ বাপ হোতা হ্যায়। যদিও এরকম কিছুই কখনও ঘটেনি বলে জানিয়েছেন আখতার।

আরও পড়ুন-  দশ মাস ধরে ক্রিকেটারদের বেতন দেয়নি বিশ্বের সব থেকে ধনী ক্রিকেট বোর্ড!

পাকিস্তানের এক টিভি চ্যানেলে সাক্ষাত্কার দিতে গিয়ে আরও একবার আখতারের কাছে সঞ্চালক জানতে চান, শেহবাগ কি সত্যিই তাঁকে এরকম কিছু কখনও বলেছিলেন নাকি! আখতার উত্তরে বলেন, ''এরকম কিছুই কখনও হয়নি। এসব ওর মনগড়া কথা। এমন কোনও কথা মাঠে বললে আমি ওকে ছেড়ে দিতাম নাকি! মাঠেই ও আমার হাতে মার খেত। তার পর হোটেলে গিয়েও ওকে মেরে আসতাম। ও আসলে একটা মিথ্যে ল্প সাজিয়ে বলছে সব জায়গায়।''