SSKM-এর চিকিৎসক সেজে লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা, গণধোলাই স্থানীয়দের

অভিযোগ, লকডাউনে চিকিৎসার সমস্যায় পড়েন স্থানীয়রা। আর সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসা ফেঁদে বসেন ভিন জেলার এই যুবক।

Edited By: Priyanka Dutta | Updated By: Jun 30, 2020, 07:10 PM IST
SSKM-এর চিকিৎসক সেজে লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা, গণধোলাই স্থানীয়দের
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: লকডাউনের সুযোগ নিয়ে চিকিৎসক সেজে লক্ষাধিক টাকার প্রতারণার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। জনরোষে পড়ায় বিদ্যুৎ স্তম্ভে বেঁধে গণধোলাই দেওয়া হল যুবকে। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা বারুইপুর থানা এলাকার বিড়াল ধামনগর এলাকায়।

আরও পড়ুন: কাজ দেওয়ার নামে ডেকে হাসপাতালে মহিলাদের যৌন হেনস্থা, ডেপুটি সুপারের কুকীর্তি ভাইরাল

অভিযোগ, লকডাউনে চিকিৎসার সমস্যায় পড়েন স্থানীয়রা। আর সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসা ফেঁদে বসেন ভিন জেলার এই যুবক। ঘটনা জানাজানি হতেই মঙ্গলবার দুপুরে তাকে দীঘির সান এলাকায় রাস্তায় ফেলে গণধোলাই দেয় উত্তেজিত জনতা।

স্থানীয় সূত্রে খবর, অভিযুক্ত যুবক মুর্শিদাবাদের বহরমপুরের বাসিন্দা। বেশ কয়েকদিন ধরেই সৌরভ বিশ্বাস নাম নিয়েই চলছিল এই প্রতারণা চক্র। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত সৌরভ বারুইপুর টংতলার কাছে একটি বাড়িতে বছর খানেক ধরে ঘর ভাড়া নিয়ে একাই থাকতেন। 

আরও পড়ুন:  আগামী বছর জুন পর্যন্ত বিনামূল্যে রেশন দেবে রাজ্য সরকার, ঘোষণা মমতার
 

স্থানীয় গৃহবধূ আরতি নস্করের অভিযোগ, দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে তার অসুস্থ শ্বশুড়ের চিকিৎসার জন্য পিজি হাসপাতালের চিকিৎসকের পরিচয় দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা নেওয়া হয় তাঁর থেকে। এখানেই শেষ নয় তাদের পরিবারের সমস্ত সদস্যের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে ঘরের চাবি নকল করে আলমারি থেকে সোনার গহনা ও নগদ টাকা হাতানোর অভিযোগও উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে।

জানা গিয়েছে, খোয়া যাওয়া সোনার অলংকারের আনুমানিক বাজার মূল্য কয়েক লক্ষ টাকা। এরপরই জানাজানি হয় ঘটনাটি। তার বিরুদ্ধে বারইপুর থানায় অভিযোগ জানান আরতী নস্করের পরিবার।  কিন্তু এদিন প্রতারণার শিকার বেশকিছু মানুষ তাঁর কাছে পাওনা টাকা ফেরত চায়। ফলত জনরোষে পড়েন অভিযুর্ক। তাকে বিদ্যুৎ স্তম্ভে পিঠ মোড়া করে বেঁধে রাখার পাশাপাশি রাস্তায় ফেলে এলোপাতাড়ি মারধর করে উত্তেজিত জনতা।