কোনও দলকেই সমর্থন নয়, সাফ জানিয়ে দিল আদিবাসী কুড়মি সমাজ

তাঁদের দাবি, এমন পদক্ষেপ আদিবাসী কুড়মি সমাজের ঘোষিত অবস্থান বিরোধী।

Updated By: May 11, 2019, 07:22 PM IST
কোনও দলকেই সমর্থন নয়, সাফ জানিয়ে দিল আদিবাসী কুড়মি সমাজ

নিজস্ব প্রতিবেদন : কোনও রাজনৈতিক দলকেই সমর্থন নয়।ষষ্ঠ দফার ভোটগ্রহণের আগেরদিন সাফ জানাল আদিবাসী কুড়মি সমাজ। শনিবার দুপুর ১টা নাগাদ শিলদাতে আদিবাসী কুড়মি সমাজের একটি জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, মেদিনীপুর জেলা ও ব্লক স্তরের শীর্ষস্থানীয় নেতৃত্বরা উপস্থিত ছিলেন এই বৈঠকে। আদিবাসী কুড়মি সমাজের মূলমানতা অজিত প্রসাদ মাহাতোও ছিলেন। এই আলোচনা সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, কোনও রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করবে না আদিবাসী কুড়মি সমাজ। নিরপেক্ষতা বজায় রাখবে তারা।

আরও পড়ুন-  তিস্তা বুড়ির পুজো সেরে জলপাইগুড়িতে শুরু হল মেচেনী মেলা

এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শশাঙ্ক শেখর মাহাতো। গতকাল ঝাড়গ্রাম শহরের একটি বেসরকারি অতিথিশালায় আদিবাসী কুড়মি সমাজের জেলা নেতৃত্বের নাম করে সংগঠনের কয়েকজন কর্মী, ঝাড়গ্রাম লোকসভার প্রার্থী বিরবাহা সোরেনের সমর্থনে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন। এই ব্যাপারেই চূড়ান্ত অসন্তোষ জাহির করেছে কুড়মি সমাজের একাংশ। তাঁদের দাবি, এমন পদক্ষেপ আদিবাসী কুড়মি সমাজের ঘোষিত অবস্থান বিরোধী। যে বা যাঁরা এমন অবস্থান বিরোধী কাজ করেছেন তাঁদের আগামী সাতদিনের মধ্যে কারণ জানাতে হবে বলেও বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

আরও পড়ুন-  বিজেপি মহিলা কর্মীদের মাটিতে ফেলে মারধরের অভিযোগ শাসকদলের বিরুদ্ধে

আদিবাসী কুড়মি সমাজের পক্ষ থেকে সাফ জানানো হয়েছে, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসার যথাযথ কারণ দর্শাতে না পারলে সংশ্লিষ্ট কর্মীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। শশাঙ্ক শেখর মাহাতো জানিয়েছেন, ''বিরবাহা সোরেন (টুডু)-এর স্বামী রবিন টুডু কুড়মি জাতির আত্মপরিচিতি আদায়ের ক্ষেত্রে যে ঘৃ্ণ্য সংবিধান বিরোধী ভূমিকা নিয়েছিলেন তার জন্যই আমাদের এই দৃঢ় অবস্থান।''