close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

দেনার দায়ে আত্মঘাতী দম্পতি, ঘুম থেকে উঠে দরজা ভেঙে দেহ উদ্ধার করল ছেলে

ছেলে পাশের ঘরে ঘুমোলেও কিছুই টের পায়নি!

Updated: Jul 12, 2018, 01:36 PM IST
দেনার দায়ে আত্মঘাতী দম্পতি, ঘুম থেকে উঠে দরজা ভেঙে দেহ উদ্ধার করল ছেলে

নিজস্ব প্রতিবেদন : ঘরের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ। অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পরেও কোনও সাড়া মেলেনি। শেষমেশ দরজা ভাঙতেই চোখে পড়ল চমকে ওঠার মতো দৃশ্য। ঘরের দরজা ভেঙে বাবা-মায়ের জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার করল ছেলে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়া জেলার কল্যাণীতে।

কল্যাণীর নতুনপল্লির বাসিন্দা ছিলেন বাপি চক্রবর্তী। স্ত্রী ঝুমা চক্রবর্তী ও ছেলেকে নিয়ে ছোট্ট সংসার। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই দেনার দায়ে ডুবেছিলেন বাপি। এই নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে নিত্য অশান্তি লেগে থাকত। রোজই দুজনের মধ্যে ঝগড়াঝাঁটি হত।

এরপরই এদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে দম্পতির ছেলে বাবা-মায়ের ঘরে ডাকতে গিয়ে দেখে দরজা ভিতর থেকে বন্ধ। অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পরেও কোনও সাড়া না মেলায় দরজা ভাঙে সে। ঘরে ঢুকে সে দেখতে পায়, বিছানা লন্ডভন্ড। বিছানার উপর পড়ে রয়েছে মায়ের দেহ। আর ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছে বাবা।

আরও পড়ুন, ফের লাইনে ঝাঁপ, ব্যস্ত সময়ে ব্যাহত মেট্রো চলাচল

অভিযোগ, ঝুমা চক্রবর্তীকে খুনের পরই আত্মঘাতী হয়েছেন বাপি চক্রবর্তী। পুলিস এসে দেহ দুটি উদ্ধার করেছে। প্রাথমিকভাবে অনুমান, দেনার দায়েই স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী হয়েছেন বাপি। এদিকে, পাশের ঘরে ছেলে ঘুমোলেও সে কিছুই টের পায়নি বলে জানিয়েছে।