close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

চাকরি না পাওয়ায় অবসাদে আত্মঘাতী ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্র

বছর তিনেক আগে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেন উত্পল।

Updated: Mar 16, 2019, 12:14 PM IST
চাকরি না পাওয়ায় অবসাদে আত্মঘাতী ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : চাকরি না পাওয়ায় মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী হলেন এক ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্র। আত্মঘাতী ছাত্রের নাম উৎপল ঘোষ। বীরভূমের সিউড়ির সমন্বয় পল্লির বাসিন্দা ছিল উত্পল। শনিবার সকালে নিজের ঘর থেকেই উত্পলের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বছর তিনেক আগে ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেন উত্পল। এরপর চাকরির আশায় বিভিন্ন জায়গায় পরীক্ষা দেন তিনি। কিন্তু চাকরি পাননি। এই কারণে দীর্ঘদিন ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন উৎপল। বেশ কিছুদিন ধরে কারও সঙ্গেই ভালোভাবে কথাবার্তা বলছিলেন না। খাওয়া-দাওয়াও করছিলেন না ঠিকভাবে। এরপর আজ সকালে শোওয়ার ঘর থেকে উত্পলের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

আরও পড়ুন, 'যেমন চরিত্র, তেমন আলোচনা', ফেসবুক ট্রোলিংয়ে খোঁচা দিলীপের

বাড়ির লোকেরা জানিয়েছেন, শুক্রবার রাতে খাওয়ার পর শুতে যান উৎপল। কিন্তু আজ অনেক বেলা হয়ে গেলেও 'ঘুম' থেকে উঠে ঘরের বাইরে আসেনি উত্পল। তাতে সন্দেহ হয় বাড়ির লোকের। তাঁরা দরজা ধাক্কা দিতেই দেখেন, সেটি ভিতর থেকে বন্ধ রয়েছে। কিন্তু অন্য দিন দরজা খোলা থাকে। এরপরই পর দরজা ভেঙে উৎপলের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়।

আরও পড়ুন, ঘাসফুলে ভাই সঞ্জয়, দাদা অর্জুনকে ৬ বছরের জন্য সাসপেন্ড করল তৃণমূল

সঙ্গে সঙ্গই খবর দেওয়া হয় সিউড়ি থানার পুলিসে। পুলিস এসে উত্পলের নিথর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিউড়ি সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। জানা গিয়েছে, উত্পলের বাবা চিটফান্ড সংস্থা রোজভ্যালির এজেন্ট ছিলেন। বর্তমানে তাঁর কোনও উপার্জন নেই। অন্যদিকে, পাস করে যাওয়ার পরেও উপযুক্ত চাকরি পাননি উত্পল। ফলে সব মিলিয়ে নিদারুণ অর্থকষ্টের মধ্যে দিন কাটছিল উত্পলের পরিবারের।