নুসরতকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট, বিজেপি নেতা-সহ গ্রেফতার ২

অভিযোগ অস্বীকার করে দাবি, "তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই এইসব কুরুচিকর পোস্টে ফেসবুক ছেয়ে গিয়েছে। যে এবার টিকিট পাননি, তাঁর সমর্থকদের কাজ এটা।"

Updated By: Mar 16, 2019, 05:57 PM IST
নুসরতকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট, বিজেপি নেতা-সহ গ্রেফতার ২

নিজস্ব প্রতিবেদন : সোশ্যাল মিডিয়ায় নুসরত জাহাঁর নামে আপত্তিকর লেখা ও ছবি পোস্টের অভিযোগে গ্রেফতার করা হল এক বিজেপি নেতাকে। ধৃতের নাম শুভেন্দু চক্রবর্তী। উল্লেখ্য, বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার আইটি সেলের কনভেনার হলেন শুভেন্দু  চক্রবর্তী।

লোকসভা ভোটে বসিরহাট আসন থেকে টলিউড অভিনেত্রী নুসরত জাহাঁকে প্রার্থী ঘোষণা করেছে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। তাঁকে লোকসভা ভোটের প্রার্থী ঘোষণা করতেই ফেসবুকে ট্রোলিংয়ের শিকার হন নুসরত জাহাঁ। কুরুচিকর মিম-এ ছেয়ে যায় ফেসবুক, টুইটার সহ অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া। এই ঘটনায় বিজেপির বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার আইটি সেলের কনভেনার শুভেন্দু চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন বাদুড়িয়ার বাসিন্দা বিপ্লব সাহা নামে এক ব্যক্তি।

এরপরই এদিন বসিরহাট বিজেপির আইটি সেলের নেতা শুভেন্দু চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করে বাদুড়িয়া থানার পুলিস। তাঁর বিরুদ্ধে ৫০৫/২, ১২০বি আইপিসি ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। ধৃতকে এদিন বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয়। বিচারক শুভেন্দু চক্রবর্তীকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। তবে, শুভেন্দু চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় বিজেপি নেতা মিহির বাগচী। তিনি দাবি করেছেন, "উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে শুভেন্দুকে জড়ানো হয়েছে। তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই এইসব কুরুচিকর পোস্টে ফেসবুক ছেয়ে গিয়েছে। যে এবার টিকিট পাননি, তাঁর সমর্থকদের কাজ এটা।"

আরও পড়ুন, বৈঠকে উপমুখ্য নির্বাচন কমিশনার, স্পর্শকাতর বুথের দাবি নিয়ে যুযুধান শাসক-বিরোধী

অন্যদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর পোস্ট করার অভিযোগে তন্ময় বালা বলে গাইঘাটাতেও একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তন্ময় বালা গাইঘাটার চাঁদপাড়ার বাসিন্দা। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, তিনি প্রথমে নুসরতকে নিয়ে কুরুচিকর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন, তারপর আবার সেই ছবি মুছেও দেন। তবে, তাঁর নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা গাইঘাটা থানায় অভিযোগ করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেফতার করা হয়েছে তন্ময় বালাকে। আজ ধৃতকে বনগাঁ আদালতে তোলা হয়।

উল্লেখ্য, সোশ্যাল মিডিয়ায় তৃণমূলের যাদবপুর প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী ও বসিরহাট প্রার্থী নুসরত জাহাঁ ট্রোলড হওয়ার ঘটনায় গতকাল কটাক্ষ করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বলেন, "যার যেমন চরিত্র তাঁকে নিয়ে তেমনই আলোচনা হয়।" পরে অবশ্য 'ঢোঁক' গিলে বলেন, "ওদের ফিল্মি ক্যারেক্টারের কথা বলেছি।" তাঁদেরকে নিয়ে এভাবে ট্রোলিং করাকে 'মহিলাদের অসম্মান করার জন্য ষড়যন্ত্র' বলে উল্লেখ করেছেন নুসরত জাহাঁ। একইসুরে ট্রোলিংয়ের জবাব দিয়েছেন মিমিও। নারীদের 'একটু  সম্মান' করার কথা বলেন তিনি।