মধ্যযুগীয় বর্বরতা! মেয়ের সামনেই মাকে 'গণধর্ষণ', মুগুর দিয়ে পিটিয়ে খুন বাসন্তীতে

রাতে ঘরে একরত্তি মেয়েকে নিয়ে ঘুমাচ্ছিলেন ওই মহিলা। সেইসময়ই ঘরে ঢোকে প্রতিবেশী এক যুবক ও তার সঙ্গী-সাথীরা।

Updated By: Sep 1, 2019, 12:41 PM IST
মধ্যযুগীয় বর্বরতা! মেয়ের সামনেই মাকে 'গণধর্ষণ', মুগুর দিয়ে পিটিয়ে খুন বাসন্তীতে

নিজস্ব প্রতিবেদন : মেয়ের সামনেই মাকে গণধর্ষণ। তারপর মাথায় মুগুরের আঘাতে মাকে খুন করল যুবকের দল। ভয়ঙ্কর এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তীতে।  

জানা গিয়েছে, শনিবার রাতে ঘরে একরত্তি মেয়েকে নিয়ে ঘুমাচ্ছিলেন ওই মহিলা। সেইসময়ই ঘরে ঢোকে প্রতিবেশী এক যুবক ও তার সঙ্গী-সাথীরা। তারপর ফাঁকা ঘরে ওই মহিলাকে গণধর্ষণ করে যুবকের দল। এরপর জানাজানি হওয়ার ভয়ে ওই মহিলাকে খুনও করে যুবকের দল। মহিলার মাথায় মুগুর দিয়ে আঘাত করে খুন করা হয় তাঁকে।

বাসন্তীর চড়াবিদ্যা পেটুয়াখালি গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন নিহত মহিলা। বয়স ৩৮ বছর। স্বামী কাজের সূত্রে বাইরে থাকেন। মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে একাই থাকতেন ওই মহিলা। আর সেই একা থাকার সুযোগ নিয়েই রাতে ঘরে হামলা চালায় যুবকের দল। অভিযোগ, ঘরে ঢুকে শিশুসন্তানের সামনেই ওই মহিলাকে ধর্ষণ করে অভিযুক্তরা।

আরও পড়ুন, গলফগ্রিনে পার্কের পাশে কাত হয়ে পড়ছিল লোকটা! সামনে যেতেই শিউরে উঠলেন স্থানীয়রা

ধর্ষণের পর মুখ বন্ধ রাখার হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কিন্তু মহিলা চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করলে, তারপরই খুন করা হয় তাঁকে। মুগুর দিয়ে পিটিয়ে খুন করা হয় তাঁকে। তারপরই চম্পট দেয় এলাকা থেকে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে বাসন্তী থানার পুলিস। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে বাসন্তী থানার পুলিস। অভিযুক্তদের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।