কালিয়াচককাণ্ডে নয়া তথ্য, ঝাড়খন্ড থেকে আনা হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র

যে ৭টি সেভেনএমএম পিস্তল পাওয়া গিয়েছে, তা সাধারণত মালদা বা মুর্শিদাবাদ থেকে পাওয়া যেতে পারে না বলে অনুমান পুলিসের। এগুলি অত্যাধুনিক অস্ত্র।  

Updated By: Jun 21, 2021, 09:13 AM IST
কালিয়াচককাণ্ডে নয়া তথ্য, ঝাড়খন্ড থেকে আনা হয়েছে আগ্নেয়াস্ত্র

নিজস্ব প্রতিবদন: কালিয়াচককাণ্ডে নয়া তথ্য। আসিফের বন্ধুর বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্র ঝাড়খন্ড থেকে আনা হয়েছিল। গত নভেম্বর মাসেই, সব অস্ত্র আনা হয় বলে জানতে পেরেছে পুলিস। যদিও কার কাছ থেকে কীভাবে কেনা হয়, সে বিষয়ে পরিষ্কার করে কিছু বলছে না আসিফ। এই প্রশ্নের উত্তরে কখনও সে বলছে বাবা তাকে এনে দিয়েছিল আবার কখনও বলছে বন্ধুর কাছ থেকে পেয়েছিল। আসিফের বক্তব্যে এখনও পর্যন্ত ধোঁয়াশা। 

কোথা থেকে নিয়ে এল এত অস্ত্র? কে রয়েছে এই কর্মকাণ্ডের পিছনে? কেনাবেচায় কে মধ্যস্থতাকারী ? এই গোটা বিষয়টি পরিষ্কার করে জানতে তদন্তে পুলিস। চলছে দফায় দফায় জেরা। 

জানা গিয়েছে, আসিফের কাছ থেকে পাওয়া ৫ টি পিস্তলের গুলি অত্যাধুনিক। আসিফকে জিজ্ঞাসা করে পুলিস জানতে পেরেছে সম্পত্তি বেচে এই অস্ত্র সে কিনেছে। যে ৭টি সেভেনএমএম পিস্তল পাওয়া গিয়েছে, তা সাধারণত মালদা বা মুর্শিদাবাদ থেকে পাওয়া যেতে পারে না বলে অনুমান পুলিসের। এগুলি অত্যাধুনিক অস্ত্র।  

 অন্যদিকে,মালদহে ধৃত চিনা নাগরিককে জেরা করছে রাজ্য এসটিএফ। তার ল্যাপটপ ও ফোন থেকে বহু তথ্য পাওয়া যেতে পারে বলে অনুমান। সেগুলি খোলার চেষ্টা করছেন গোয়েন্দারা। এই চিনা নাগরিক এবং আসিফের অস্ত্র কেনার ঘটনা কোনওভাবে সম্পর্কিত কিনা তা ভাবাচ্ছে পুলিসকে। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনও সদুত্তর দেয়নি আসিফ।   

প্রসঙ্গত, শনিবার মালদহের কালিয়াচকের একটি বাড়ির চৌবাচ্চা থেকে চারটি কঙ্কাল উদ্ধার করে পুলিস। জানা যায়, কয়েক মাস আগে ওই পরিবারের চার সদস্যকে খুন করে দেহ লুকিয়ে রাখা হয়েছিল ওই চৌবাচ্চায়। পুলিসের কাছে ছোট ভাইয়ের 'কীর্তি' ফাঁস করে দেন দাদা মহম্মদ আরিফ। গ্রেফতার করা হয় বাড়ির ছোট ছেলে, অভিযুক্ত মহঃ আসিফকে। তদন্তকারীদের দাবি, জেরায় অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছে মহম্মদ আসিফ।  

 

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)

Tags: