'মাথামোটা প্রধানমন্ত্রী কথাটা শুনলেন না' বেজায় চটলেন অনুব্রত

কিন্তু মাথামোটা প্রধানমন্ত্রী কথাটা শুনলেন না। আজ ভারতবর্ষকে শেষ করে দিলেন...

Updated By: Jun 14, 2020, 10:51 PM IST
'মাথামোটা প্রধানমন্ত্রী কথাটা শুনলেন না' বেজায় চটলেন অনুব্রত

নিজস্ব প্রতিবেদন: বছর ঘুরলেই বিধানসভা নির্বাচন। করোনা আবহে ইতিমধ্যেই অনেকটা সময় নষ্ট হয়েছে। তাই আর একেবারেই সময় নষ্ট করতে চান না বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তিনি এক ইঞ্চি জমি ছেড়ে দিতে নারাজ রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপিকে। কাজেই এই করোনার আবহেই প্রচারে নেমে পড়েছেন তিনি। রবিবার বীরভূমের সিউড়ির ২ নম্বর ব্লকের পুরন্দরপুর এলাকায় একটি পরিত্যক্ত রাইস মিলের মাঠে সামাজিক দূরত্ব মেনে সভা করেন অনুব্রত। আর এই সভা থেকেই মোদীর সরকার ও বিজেপিকে একের পর এক তোপ দাগতে দেখা গেল তাঁকে।

আরও পড়ুন: প্রতিবেশীদের বচসার জের, ৫ তলা থেকে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হল দুই শিশুকে

দেশ তথা বিশ্বকে কার্যত একটা বড় চ্যালেঞ্জের মুখে দাঁড় করিয়েছে করোনা পরিস্থিতি। আর এই ভাইরাস দেশে ছড়িয়ে পরার জন্য এক প্রকার প্রধানমন্ত্রীকেই দুষলেন অনুব্রত। সভামঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, "মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন বিদেশের বিমান বাতিল করতে। ৫ দিন সবরকম ট্রেন চালিয়ে লকডাউন করতে। যাতে অন্য রাজ্যে আটকে থাকা বাড়ি ফিরতে পারেন। তাতে করোনা বাড়বে না। কিন্তু মাথামোটা প্রধানমন্ত্রী কথাটা শুনলেন না। আজ ভারতবর্ষকে শেষ করে দিলেন।"

আরও পড়ুন: বাড়ির সামনে থেকে উধাও SSKM ডিনের বলেরো, স্কুলবাড়িতে গাড়ি লুকিয়েছিল চোর

এরপরেই তিনি অমিত শাহের ঘোষণা নিয়ে বলেন, "কদিন আগে অমিত শাহ ঘোষণা করে বললেন আমরা পশ্চিমবঙ্গকে ১১ হাজার কোটি টাকা দিয়েছি। কাদের দেওয়ার জন্য বলল? সাধারণ মানুষ, গরিব মানুষ সবার জন্য। আচ্ছা একটা কথা আপনারা বলুন তো, ১১ হাজার কোটি টাকা যদি ৯ কোটি ৫০ লক্ষ মানুষের অ্যাকাউন্টে দিয়ে থাকে তাহলে এক একটা লোক ১২০০ টাকা করে পেয়েছেন। কারোর অ্যাকাউন্টে ১২০০ টাকা করে ঢুকেছে? একজন দাঁড়িয়ে বলুন যে ১২০০ টাকা ঢুকেছে। একটা মিথ্যে কথা বলে দিলেন।"

এদিন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি আরও বলে যে, ৫০ লক্ষ করোনা হবে ভারতবর্ষে। এক ভয়ঙ্কর জায়গায় চলে যাবে ভারতবর্ষ। এর দায়ী একমাত্র নরেন্দ্র মোদি। কোনও নীতি নেই। প্রথম দিন থেকে বলে দিলো আমরা এক কেজি করে ডাল দেব, এখনও তা দিতে পারেনি।