21 July-এর রাতে বিরাটিতে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী, বিজেপির বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ

তদন্তে নিমতা থানার পুলিস।

Updated By: Jul 22, 2021, 07:10 AM IST
  21 July-এর রাতে বিরাটিতে গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মী, বিজেপির বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশে জুলাইয়ের রাতে খুন তৃণমূল কর্মী। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে বিরাটির বণিক মোড়ে। মৃত তৃণমূল কর্মীর নাম শুভ্রজিত দত্ত ওরফে পিকুন, বয়স ৩৮। গুলি করে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। বিজেপির বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগে সরব তৃণমূল নেতৃত্ব। 

জানা গিয়েছে, ঘটনার সময় শুভ্রজিত দত্ত নামের ওই তৃণমূল কর্মী উত্তর দমদম পুরসভার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। হঠাৎই বাইকে করে একদল দুষ্কৃতী এসে তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। মাথা ও বুক লক্ষ্য করে চার থেকে পাঁচটি গুলি করে। সেখানেই লুটিয়ে পড়েন শুভ্রজিৎ দত্ত। এই ঘটনার পরেই এলাকায় উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়েই সেখানে যায় নিমতা থানার বিশাল পুলিস। উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করার চেষ্টা করে পুলিস। সেখানে পৌঁছায় ব্যারাকপুর ও বিধাননগর কমিশনারেটের পুলিস বাহিনীও। আহত অবস্থায় তাকে উত্তর দমদম পুরসভার হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। রাতেই তাঁর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য আর জি কর হাসপাতালে পাঠায় পুলিস। 

আরও পড়ুন: হাড়োয়ার সংঘর্ষে ১৮ জনকে গ্রেফতার করল পুলিস, আহত ৫ জনকে আনা হল কলকাতায়

আরও পড়ুন: শুভেন্দুর প্রাক্তন দেহরক্ষীর মৃত্যুর তদন্তে এবার তলব ৮ পুলিস কর্মীকে

এলাকায় চাপা উত্তেজনা থাকায় পুলিস পিকেটিং বসানো হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে নিমতা থানার পুলিশ। এই ঘটনায় এলাকার দুষ্কৃতী বাবুলাল সিংয়ের নাম উঠে আসছে। পুলিস সূত্রে খবর, ওইদিন দুপুরে বাবুলাল সিংকে মারধর করে কয়েকজন। এতে বাবুলালের মাথায় আঘাত লাগে। সেই সময় নিমতা থানার পুলিস গিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। বর্তমানে বাইপাসের ধারে একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাবুলাল। আর এরপর রাতেই গুলিবিদ্ধ হন তৃণমূল কর্মী। এই ঘটনার সঙ্গে দুপুরের ঘটনার কোন যোগ রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে নিমতা থানার পুলিস। 

ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেছে পুলিস। দুষ্কৃতীদের শনাক্তকরনের প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। স্থানীয় তৃণমূল নেতা বিধান বিশ্বাসের অভিযোগ, ঘটনার সঙ্গে বিজেপির যোগ রয়েছে। দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।