দেড় হাজার বছরের পুরনো কৃত্রিম পা উদ্ধার অস্ট্রিয়ায়

দেড় হাজার বছর আগে ইউরোপে বাস করতেন এমন একজন মানুষ, যাঁর বাম পা ছিল না। তাই তিনি কাঠের পা কৃত্রিম পা ব্যবহার করতেন। প্রত্নতাত্বিকরা ২০১৩ সালে দক্ষিণ অস্ট্রিয়ার হেমবার্গ থেকে কবর থেকে তাঁর কঙ্কালটিকে বের করেন। এমনকি দেড় হাজার আগেও যে পৃথিবীতে কৃত্রিম পায়ের ব্যবস্থা ছিল এই কঙ্কাল থেকেই তা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

Updated By: Jan 16, 2016, 05:17 PM IST
দেড় হাজার বছরের পুরনো কৃত্রিম পা উদ্ধার অস্ট্রিয়ায়

ওয়েব ডেস্ক: দেড় হাজার বছর আগে ইউরোপে বাস করতেন এমন একজন মানুষ, যাঁর বাম পা ছিল না। তাই তিনি কাঠের পা কৃত্রিম পা ব্যবহার করতেন। প্রত্নতাত্বিকরা ২০১৩ সালে দক্ষিণ অস্ট্রিয়ার হেমবার্গ থেকে কবর থেকে তাঁর কঙ্কালটিকে বের করেন। এমনকি দেড় হাজার আগেও যে পৃথিবীতে কৃত্রিম পায়ের ব্যবস্থা ছিল এই কঙ্কাল থেকেই তা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

একজন প্রত্নতাত্বিকের মতে, 'এটি ইউরোপের চিকিৎসাবিজ্ঞানের একটি প্রাচীন নিদর্শন। যেখানে দেহে কৃত্রিম হাড় প্রতিস্থাপন করা হত। যা তৈরি করা হত কাঠ দিয়ে। এই কাঠের পা-কে হাড়ের সঙ্গে একটা লোহার রিং-এর দ্বারা আটকে রাখা হত।'

কঙ্কালটির সিটি স্ক্যান এবং রেডিওগ্রাফি করার পর জানতে পারা গেছে, জীবিতাবস্থায় তাঁর শরীরে বেশ কিছু ক্ষত ছিল। এমনকি বাম পা হারিয়ে ফেলে কৃত্রিম পা লাগানোর পর আরও ২ বছর বেঁচে ছিলেন তিনি। তবে খুব কম বয়সেই মৃত্যু হয় তাঁর। একজন বায়োআরকিওলজিস্টের কাছ থেকে জানা গেছে, তিনি সমাজের একটা উঁচু শ্রেণীর মানুষ ছিলেন। কারণ তাঁর মৃতদেহটিকে চার্চের খুব কাছে কবর দেওয়া হয়েছিল। এমনকি তাঁর কবরের সঙ্গে তলোয়ারও দেওয়া ছিল।