৩৫ সন্তানের পিতা, ৩ স্ত্রীর স্বামী, এবার ১০০ পুত্রের বাবা হবেন!

তিন স্ত্রী এবং ৩৫টি সন্তান নিয়ে ভরা সংসার পাকিস্তানের সর্দার জান মহম্মদ খিলজির। কিন্তু তিনি তাতে খুশী নন। তাঁর ইচ্ছা তিনি শত পুত্রের পিতা হবেন। আর তাই তিনি আপাতত চতুর্থ স্ত্রীয়ের সন্ধানে।

Updated By: Jun 4, 2016, 07:06 PM IST
৩৫ সন্তানের পিতা, ৩ স্ত্রীর স্বামী, এবার ১০০ পুত্রের বাবা হবেন!

ওয়েব ডেস্ক: তিন স্ত্রী এবং ৩৫টি সন্তান নিয়ে ভরা সংসার পাকিস্তানের সর্দার জান মহম্মদ খিলজির। কিন্তু তিনি তাতে খুশী নন। তাঁর ইচ্ছা তিনি শত পুত্রের পিতা হবেন। আর তাই তিনি আপাতত চতুর্থ স্ত্রীয়ের সন্ধানে।

বালুচিস্তানের কোয়েটার বাসিন্দা, মধ্য চল্লিশের খিলজি, পেশায় ম্যাডিকেল টেকনিশিয়ান। তিনি জানিয়েছেন তিনি তাঁর ৩৫টি সন্তানের নাম কখনও গুলিয়ে ফেলেন না, প্রত্যেককেই স্বনামে ডাকেন এবং তাঁর মতে তাঁর স্ত্রীদের মধ্যেও ভীষণ মিলমিশ। কিন্তু রক্ষণশীল খিলজি তাঁর স্ত্রীদের সঙ্গে সাংবাদিকদের কথা বলতে দেননি।

খিলজির শত পুত্রের জনক হওয়ার ইচ্ছা প্রভাবিত করেছে তাঁর সন্তানদেরও। যেমন তাঁর বড় ছেলে বছর তেরোর মহম্মদ এশাও বাবার মতোই ১০০ ছেলের বাপ হতে চায়।

খিলজির মুখ থেকেই জানা গেছে যে তিনি মাত্র ২৬ বছর বয়সেই দুই স্ত্রীকে নিয়ে বাড়িতে আসেন এবং প্রথম থেকেই নাকি এনিয়ে সংসারে কোনও অশান্তি হয়নি কখনও।

কিন্তু খিলজিকে যখন প্রশ্ন করা হয় যে শত পুত্র হলে তিনি খরচ সামলাবেন কি করে? এমনিতেই তিনি এখন পাঁচ কামরার মাটির ঘরে থাকেন। অবস্থাও খুব ভাল না। কিন্তু প্রশ্ন শুনে মোটেই খুশি হননি সর্দার জান মহম্মদ খিলজি। তিনি আলগোছে তার আয়ের হিসাব শুনিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন প্রত্যেক রোগী পিছু তিনি ২৫০ রুপি নেন এবং তাঁর স্কুলে কমপক্ষে ৪০০ জন ছাত্রছাত্রী রয়েছে।

খিলজি জানিয়েছেন ষে ইতিমধ্যেই তিনি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ৩৫ সন্তানের পিতা হিসাবে খুবই জনপ্রিয়, তাই অনেক মহিলাই তাঁকে স্বামী হিসাবে পেতে চায়। আর তিনি শত পুত্রের জনক হতে চান তাই সরকারের কাছেও আর্থিক সাহায্যের জন্য আবেদন করে রেখেছেন। যদিও সরকারের তরফে এখনও কোন সাড়া পাওয়া যায়নি।

এখন দেখার সর্দার জান মহম্মদ খিলজি শেষ অবধি কলির ধৃতরাষ্ট্র হতে পারেন কিনা!