ফিলিপিন্সের সামুদ্রিক ঝড়কে সুনামির সঙ্গে তুলনা রাষ্ট্রসঙ্ঘের

ফিলিপিন্সের বিধ্বংসী সামুদ্রিক ঝঞ্ঝাকে সুনামির সঙ্গে তুলনা করল  রাষ্ট্রসংঘ। সেই সঙ্গে তারা বন্যা কবলিত রাষ্ট্রের জন্য আন্তর্জাতিক মহলের কাছে প্রায় তিন কোটি ডলার ত্রাণেরও আবেদন জানিয়েছে।

Updated: Dec 18, 2011, 01:22 PM IST

ফিলিপিন্সের বিধ্বংসী সামুদ্রিক ঝঞ্ঝাকে সুনামির সঙ্গে তুলনা করল  রাষ্ট্রসংঘ। সেই সঙ্গে তারা বন্যা কবলিত রাষ্ট্রের জন্য আন্তর্জাতিক মহলের কাছে প্রায় তিন কোটি ডলার ত্রাণেরও আবেদন জানিয়েছে। দুর্যোগে এখনও পর্যন্ত এক হাজাররেও বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।
হড়কা বানে দক্ষিণ ফিলিপিন্সের অধিকাংশ এলাকায় ভেসে যাওয়ায়  গৃহহীন কয়েক হাজার মানুষ। সরকারি ত্রাণ শিবিরগুলোই তাঁদের বর্তমান ঠিকানা। তবে সেখানে পানীয় জলের অভাব চরমে। ফলে ত্রাণ শিবিরগুলিতে বিভিন্ন ধরনের রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় চিকিত্‍সক দল পাঠিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ। ত্রাণ কর্মীরাও দিন রাত এক করে দুর্গত মানুষদের কাছে খাবার, পানীয় জলের বোতল ও দরকারি জিনিস পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু তা প্রয়োজনের তুলনায় সামান্য বলেই দাবি দুর্গত মানুষদের।
দক্ষিণ ফিলিপিন্সে বিধ্বংসী সামুদ্রিক ঝড়ে মৃতের সংখ্যা ইতিমধ্যেই হাজার ছাড়িয়েছে। ঝড়ের দাপটে প্রবল বন্যায় ভেসে গিয়েছে দক্ষিণ ফিলিপিন্সের বিস্তীর্ণ অংশ। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেদুটি শহর। ক্যাগায়ান দি অরো এবং সংলগ্ন ইল্লিগান শহরে মৃতের সংখ্যা সর্বাধিক।