চিনে ধ্বংস করা হয়েছে হাজার হাজার মসজিদ, ১০ লক্ষ মুসলিমকে 'ধর্মত্যাগ'

১৯৬০ সালে সাংস্কৃতিক বিপ্লবের ;জেরে চিনে উত্থান হয় জাতীয়তাবাদী চেতনার। সেই থেকে এখন সর্বনিম্নে ঠেকেছে মুসলিম ঘরের সংখ্যা। 

Updated By: Sep 25, 2020, 06:51 PM IST
চিনে ধ্বংস করা হয়েছে হাজার হাজার মসজিদ, ১০ লক্ষ মুসলিমকে 'ধর্মত্যাগ'

নিজস্ব প্রতিবেদন: শিনজিয়াং প্রদেশে কয়েক হাজার মসজিদ ধ্বংস করেছে চিন। লক্ষ লক্ষ মুসলিমকে চাপ দিয়ে ধর্ম-কর্ম ত্যাগ করতে বাধ্যও করা হয়েছে। এমনটাই দাবি করা হল অস্ট্রেলিয়ান স্ট্র্যাটেজিক পলিসি ইনস্টিটিউটের (ASPI) রিপোর্টে।       

স্যাটেলাইট থেকে প্রাপ্ত ছবি বিশ্লেষণ করে ASPI রিপোর্ট বলছে, প্রায় ১৬,০০০ মসজিদ ধ্বংস করা হয়েছে চিনে। তার কিয়দংশই হয়েছে গতবছরে। ধ্বংস করা হয়েছে ৮৫০০ মসজিদ। উরুমকি ও কাশগড়ের মতো শহুরে এলাকার বাইরে থাকা বেশিরভাগ মসজিদ ধুলিসাৎ। শুধু তাই নয়, রিপোর্ট আরও বলছে,উইঘুর ও তুর্কিকভাষী ১০ লক্ষেরও বেশি মুসলিমকে রাখা হয়েছে ডিটেনশন ক্যাম্পে। তাঁদের চাপ দিয়ে ছাড়ানো হয়েছে ধর্মীয় কাজকর্ম ও ঐতিহ্য।

তবে কয়েকটি মসজিদ রক্ষা পেয়েছে। কিন্তু, সেগুলির চূড়া ও গম্বুজ সরিয়ে দিয়েছে চিন সরকার। গবেষণা বলছে, ১৫,৫০০ অক্ষত ও ভগ্নপ্রাপ্ত মসজিদ রয়েছে শিনজিয়াঙে। ১৯৬০ সালে সাংস্কৃতিক বিপ্লবের ;জেরে চিনে উত্থান হয় জাতীয়তাবাদী চেতনার। সেই থেকে এখন সর্বনিম্নে ঠেকেছে মুসলিম ঘরের সংখ্যা। শিনজিয়াঙে মুসলিমদের এক তৃতীয়াংশ ধর্মীয়স্থান- মাজার, কবর ও তীর্থের পথ মুছে দেওয়া হয়েছে। চিন অবশ্য দাবি করে আসছে, শিনজিয়াঙের বাসিন্দাদের পূর্ণ ধর্মীয় স্বাধীনতা রয়েছে। মসজিদ ভাঙা হলেও খৃষ্ট্রানদের গির্জা ও বৌদ্ধমঠে হাত দেয়নি প্রশাসন। 

আরও পড়ুন- নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে ধরা পড়ল দৈত্যাকার ইঁদুর! সাইজ দেখে চোখ ছানাবড়া সবার