Sneha Dubey at UN: রাষ্ট্রসংঘে পাকিস্তানকে বেনজির আক্রমণ, জেনে নিন সাহসী IFS officer-এর পরিচয়

জেনে নিন স্নেহা দুবের (Sneha Dubey) পরিচয়।

Edited By: দেবস্মিতা দাস | Updated By: Sep 25, 2021, 02:43 PM IST
Sneha Dubey at UN: রাষ্ট্রসংঘে পাকিস্তানকে বেনজির আক্রমণ, জেনে নিন সাহসী IFS officer-এর পরিচয়
রাষ্ট্রসংঘে স্নেহা দুবে। (Pic: Twitter)

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাষ্ট্রসংঘের (UN) সাধারণ অধিবেশনে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ফার্স্ট সেক্রেটারি স্নেহা দুবের বেশ কিছু 'সাহসী' জবাব নিয়ে কূটনীতিক মহলে চলছে জোর জল্পনা।  রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ পরিষদের ভার্চুয়াল বৈঠকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কাশ্মীরের প্রসঙ্গ নিয়ে মন্তব্যর কড়া সমালোচনা করেন স্নেহা দুবে৷ ইমরান খানের মন্তব্যের জবাবে নিন্দার সুরে স্নেহা সাফ জানান, ইসলামাবাদের সক্রিয়ভাবে সন্ত্রাসীদের সমর্থন করার একটি ইতিহাস রয়েছে, যা বিশ্ব দরবারেও প্রতিষ্ঠিত।

জেনে নিন স্নেহা দুবের (Sneha Dubey) পরিচয়-

২০১২ ব্যাচের আইএফএস অফিসার, যিনি দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়, স্কুল অফ ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ থেকে এমফিল অর্জন করেন। এরপর বিদেশ মন্ত্রকে চাকরি। রাষ্ট্রসংঘে ফার্স্ট সেক্রেটারি পদ পাওয়ার আগ তিনি মাদ্রিদে ভারতের থার্ড সেক্রেটারি পদে ছিলেন। মিডিয়া রিপোর্ট অনুসারে, খুব ছোটবেলা থেকেই স্নেহার   স্বপ্ন ছিল বিদেশ মন্ত্রকের এই বিভাগগুলিতে যোগ দেওয়ার।  ২০১১ সালে প্রথম প্রচেষ্টায় সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন তিনি। এরপরই শুরু হয় স্বপ্নের উড়ান। 

আরও পড়ুন, India at UN: 'বেআইনিভাবে অধিকৃত কাশ্মীর ছেড়ে দিক পাকিস্তান', রাষ্ট্রসংঘে ইসলামাবাদকে আক্রমণ ভারতের

স্নেহার পরিবারে তিনিই প্রথম, যিনি সরকারি চাকরিতে যোগদান করেছেন। তাঁর বাবা একটি বহুজাতিক সংস্থায় কাজ করেন এবং মা একজন স্কুল শিক্ষক।

স্নেহার এই বক্তৃতার পর তাঁকে প্রাক্তন দুই রাষ্ট্রসংঘের ভারতীয় মহিলা কূটনীতিক এনাম গম্ভীর এবং বিদিশা মৈত্রের সঙ্গে তুলনা করে প্রশংসা করেছেন নেটিজেনরা। 

স্নেহার বক্তৃতার কয়েকটি অংশগুলি হল- 

১) পাকিস্তানের সন্ত্রাসীদের আশ্রয়, সাহায্য এবং সক্রিয়ভাবে সমর্থন করার একটি প্রতিষ্ঠিত ইতিহাস এবং নীতি রয়েছে। এমন একটি দেশ যা বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাসীদের সমর্থন, প্রশিক্ষণ, অর্থায়ন এবং রাষ্ট্রীয় নীতির বিষয় হিসাবে অস্ত্র রাখতে স্বীকৃতি দিয়ে থাকে।

২) এটা বলা হয় যে পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের শিকার। এই দেশটিই নিজেরাই ছদ্মবেশী সেজে থাকে৷ দেশের অভ্যন্তরে সন্ত্রাসের বৃদ্ধি ঘটিয়ে চলে৷ পাকিস্তান সন্ত্রাসীদের লালনপালন করে এই আশায় যে তারা শুধু তাদের প্রতিবেশীদের ক্ষতি করবে।

দেখে নিন রাষ্ট্রসংঘে ভারতের ফার্স্ট সেক্রেটারির উত্তর- 

আরও পড়ুন, Modi In US: Joe Biden-এর পরিজনদের খোঁজ দিলেন মোদী! Kamala Harris-কে দাদুর স্মৃতি উপহার

৩) আমরা কিছুদিন আগে ৯/১১ সন্ত্রাসী হামলার ২০ তম বার্ষিকী উদযাপন করেছি। বিশ্ব ভোলেনি সেই নৃশংস ঘটনার পেছনের মূল পরিকল্পনাকারী ওসামা বিন লাদেন পাকিস্তানে আশ্রয় পেয়েছিলেন। আজও পাকিস্তান নেতৃত্ব তাকে শহীদ হিসেবে গৌরবান্বিত করে।

৪) বহুত্ববাদ একটি ধারণা যা পাকিস্তানের জন্য বোঝা খুবই কঠিন যা সংখ্যালঘুদের রাজ্যের উচ্চপদে কাজ করতে বাধা দেয়। 

৫) পাকিস্তানের সংখ্যালঘুরা - শিখ, হিন্দু, খ্রিস্টানরা - তাদের ভীতি এবং রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় তাদের অধিকার দমন করছে।

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)