"মোদী মহান"! প্রশংসায় পঞ্চমুখ ট্রাম্প, একসঙ্গে করোনা যুদ্ধ জেতার পাল্টা বার্তা মোদীর

২৫ মার্চ থেকে এই ওষুধ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ভারত সরকার। কিন্তু বন্ধু ট্রাম্পের হুঙ্কারের পর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

Updated By: Apr 9, 2020, 11:52 AM IST
"মোদী মহান"! প্রশংসায় পঞ্চমুখ ট্রাম্প, একসঙ্গে করোনা যুদ্ধ জেতার পাল্টা বার্তা মোদীর
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন-  ট্রাম্পের হুঙ্কারের পর করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশ গুলিতে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রফতানি করতে রাজি হয়ে যায় ভারত সরকার। আর ওষুধ পেয়েই মোদীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বুধবার টুইট করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে মানবিক নেতা বলে সম্বোধন করলেন ট্রাম্প। টুইটে ট্রাম্প লিখেছেন, কঠিন সময়ে পাশে দাঁড়ানোই বন্ধুত্ব। মোদীর নেতৃত্ব শুধু ভারত নয় সারা বিশ্বের জন্য উপকারী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট আগেই বলেছিলেন," নরেন্দ্র মোদী মহান, তিনি সত্যিই খুব ভালো।"

বন্ধুর ভালোবাসায় আপ্লুত হয়ে ভালোবাসার সুরও নরেন্দ্র মোদীর গলায়। মোদী টুইট করে জানিয়েছেন, এই ঘটনার দরুন ভারত- আমেরিকা বন্ধুত্বের সম্পর্ক আরও মজবুত হলো। ভারত পুরোদমে করোনার সঙ্গে লড়াই করবে। এবং এই করোনা লড়াইয়ে আমরা একসঙ্গে লড়ব।

করোনার জেরে মৃত্যুপুরী হয়েছে আমেরিকা। ৪ লক্ষেরও বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত সে দেশে, মৃত্যু হয়েছে ১৪ হাজার জনেরও বেশি মানুষের। তাই  গুজরাটের তিনটি কারখানা থেকে প্রায় ৩  কোটি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট ভর্তি জাহাজ পাড়ি দিচ্ছে মার্কিন মুলুক।

সারা বিশ্বের প্রায় ৭০ শতাংশ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন তৈরি করে ভারত। আর এই ওষুধকে কয়েকদিন আগে করোনা মোকাবিলায় "গেম-চেঞ্জার" বলেছিলেন ট্রাম্প। মার্কিন সংস্থা সিডিসিই প্রথম করোনায় এই ওষুধ ব্যবহারের কথা বললেও ধীরে ধীরে সর্বজনগ্রাহ্য হয়েছে এই ওষুধ। আইসিএমআরও (Indian Council of Medical Research) সবুজ সংকেত দিয়েছে এই ওষুধ ব্য়বহারে।

আরও পড়ুন- সরকারি কিংবা বেসরকারি, বিনামূল্যে করতে হবে করোনা পরীক্ষা, কেন্দ্রকে পরামর্শ সুপ্রিম কোর্টের

২৫ মার্চ থেকে এই ওষুধ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল ভারত সরকার। কিন্তু বন্ধু ট্রাম্পের হুঙ্কারের পর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আর তারপর থেকেই মোদীকে দুধে ভাতে রাখছেন ট্রাম্প। ওষুধ পাওয়ার আগে প্রতিশোধের কথা আর কার্যসিদ্ধির পর প্রতিদানেক কথায় রাতের ঘুম উড়েছে অনেকেরই।  আগেই টুইটে কটাক্ষ করে রাহুল গান্ধী লিখেছিলেন "বন্ধুত্ব প্রতিশোধের বিষয় নয়। ভারতেই করোনা আক্রান্ত ৫,০৯৫, মৃত্যু হয়েছে ১৬৬ জনের। তাই আগে ভারতের জন্য় পর্যাপ্ত ওষুধ রেখে তারপর অন্য দেশে রফতানির কথাও বলেছিলেন কংগ্রেস নেতা।

কিন্তু ট্রাম্প বলছেন মোদীর মতো ভালো মানুষ হয় না। আর পাশে থাকার বার্তা মোদীর। ইতিমধ্যেই বিশ্বের একাধিক দেশে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রফতানি করছে ভারত।  যা দেখে নিন্দুকেরা বলছে আগে ভারত বাঁচুক, তারপর নাহয় অন্য দেশ।