মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন করা ছাত্রী নিবাসের অচলাবস্থা চরমে

সব পরিকাঠামো তৈরি। স্কুল হস্টেলের দোতলা বিল্ডিং, রান্নাঘর, খাবার ঘর সহ সব কিছুই রেডি। নেই শুধু তাঁরাই, যাদের জন্য এত ব্যবস্থা। এক-দুটি না, পুরুলিয়ার ২২টি ছাত্রী নিবাসের ছবি এখন এটাই। হস্টেল পরিচালনার দায়িত্ব নিয়ে টানাপোড়েনের জেরে, অচলাবস্থা চরমে। 

Updated By: Jun 25, 2016, 07:38 PM IST
মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বোধন করা ছাত্রী নিবাসের অচলাবস্থা চরমে

ওয়েব ডেস্ক: সব পরিকাঠামো তৈরি। স্কুল হস্টেলের দোতলা বিল্ডিং, রান্নাঘর, খাবার ঘর সহ সব কিছুই রেডি। নেই শুধু তাঁরাই, যাদের জন্য এত ব্যবস্থা। এক-দুটি না, পুরুলিয়ার ২২টি ছাত্রী নিবাসের ছবি এখন এটাই। হস্টেল পরিচালনার দায়িত্ব নিয়ে টানাপোড়েনের জেরে, অচলাবস্থা চরমে। 

আরও পড়ুন নদীর জলকে পাম্পের সাহায্যে তুলে পানীয় উপযোগী করতে উদ্যোগ পঞ্চায়েত দফতরের

বছর খানেক আগে মুখ্যমন্ত্রী নিজে এই সমস্ত ছাত্রী নিবাসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এ পর্যন্ত সব ঠিক ছিল। গণ্ডগোল শুরু এরপরই। সব তৈরি থাকলেও, আজ পর্যন্ত আর দরজা খোলেনি এই ছাত্রী নিবাসগুলির। অভিযোগ, প্রশাসন কেবল বিল্ডিং তৈরি করেই দায় সেরেছে। কিন্তু হস্টেল চালানোর জন্য প্রয়োজনীয় কর্মী কোথায়? তবে জেলাশাসক অবশ্য দাবি করেছেন, কোথাও কোনও ফাঁক নেই। সবকিছু ঠিক পথেই এগোচ্ছে।

আরও পড়ুন ময়নাতদন্তের পরেও ১০দিন ধরে মৃতদেহ পড়ে রয়েছে মর্গে!

বলছেন বটে ডিএম। কিন্তু স্কুলগুলিই তো গাইছে উল্টো সুর! গোটা অব্যবস্থার জেরে, ক্ষুব্ধ স্কুলগুলিও। অবহেলায়, অযত্নে পড়ে পড়ে নষ্ট হচ্ছে হস্টেল বিল্ডিং। কোথাও কোথাও ছাদ থেকে জল পড়ছে, কিংবা জানালার কাঁচ ভাঙছে। প্রশাসনের বক্তব্য, স্কুলগুলিকেই হস্টেল পরিচালনার দায়িত্ব নিতে হবে। এনিয়েই এখন জেলায় জারি টানাপোড়েন। যার মাঝে পড়ে কোনও কাজেই আসছে না এই সমস্ত স্কুল হস্টেল।