ভোটের আগে সচিত্র পরিচয়পত্র, পরে আঙুলের কালি, দেখাতেই পারলেই চৈত্র সেলে ছাড় মিলবে ২ শতাংশ

চৈত্র সেলের আগে আসানসোলের নতুন ভোটারদের পোয়াবারো। সচিত্র পরিচয়পত্র দেখাতে পারলে জামা কাপড়ের দোকানে কেনাকাটায় মিলবে বাড়তি দু শতাংশ ছাড়। ভোটদান পর্ব মিটে গেলে আঙুলে ভোটের কালি দেখাতে পারলে ছাড় মিলবে আরও দু শতাংশ। তরুণ প্রজন্মকে ভোটদানে উতসাহ দিতে জেলা প্রশাসনের এই উদ্যোগে হাত মিলিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। কর্পোরেট ধাঁচের ভাবনা ভোটপর্বকে ঘিরে। ভাবনা শুধু নয়, একেবারে হাত কলমে উদ্যোগ। আসানসোলের নতুন ভোটারদের বুথমুখী করতে উদ্যোগী জেলা প্রশাসন।

Updated By: Mar 27, 2014, 10:59 PM IST

চৈত্র সেলের আগে আসানসোলের নতুন ভোটারদের পোয়াবারো। সচিত্র পরিচয়পত্র দেখাতে পারলে জামা কাপড়ের দোকানে কেনাকাটায় মিলবে বাড়তি দু শতাংশ ছাড়। ভোটদান পর্ব মিটে গেলে আঙুলে ভোটের কালি দেখাতে পারলে ছাড় মিলবে আরও দু শতাংশ। তরুণ প্রজন্মকে ভোটদানে উতসাহ দিতে জেলা প্রশাসনের এই উদ্যোগে হাত মিলিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। কর্পোরেট ধাঁচের ভাবনা ভোটপর্বকে ঘিরে। ভাবনা শুধু নয়, একেবারে হাত কলমে উদ্যোগ। আসানসোলের নতুন ভোটারদের বুথমুখী করতে উদ্যোগী জেলা প্রশাসন।

হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। জামাকাপড়ের দোকানে কেনাকাটা করলে চৈত্র সেলের ছাড় তো আছেই। এর ওপর নতুন ভোটাররা সচিত্র পরিচয়পত্র দেখালে কেনাকাটার ওপরে পাবেন অতিরিক্ত দু শতাংশ ছাড়। সাতই মে আসানসোলে নির্বাচন। ছাড় পাওয়া যাবে ছয়ই মে পর্যন্ত। এখানেই শেষ নয়। ভোট দেওয়ার পরে আঙুলের কালি দেখাতে পারলে আরও দু শতাংশ ছাড় দশই মে পর্যন্ত । স্বাভাবিকভাবেই খুশি নতুন ভোটাররা।

তরুণ প্রজন্মকে ভোটদানে উতসাহিত করতে নয়া উদ্যোগের কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন বর্ধমানের জেলাশাসক। এরপর আসানসোলের মহকুমা শাসক উদ্যোগী হয়ে ব্যবসায়ীদের প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবে সাড়া মিলেছে ভালই।