ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট, আধা সেনার কড়া নজরে, নিজের গড়ে, নিজের মেজাজেই কাটালেন অনুব্রত

ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট, আধা সেনার কড়া নজরে, নিজের গড়ে, নিজের মেজাজেই কাটালেন অনুব্রত

সকাল বেলা উঠে ইষ্ট দেবতাকে রোজ ফুল মিষ্টি। তারপর নিয়মভঙ্গ। ভোটপুজোতেও নিয়ম ভেঙেছেন সকাল সকাল। পাঞ্জাবিতে জোড়া ফুলের ব্যাচ নিয়ে ভোটদান। দিন শেষে বুঝিয়ে দিয়েছেন অনুব্রত আছেন অনুব্রততেই। তাঁর গড়ে তিনিই শেষ কথা। অনুব্রত মানেই ভোটের চমক। গুড়-জল বিতর্ক। অক্সিজেন-নাইট্রোজেন তরজা। বিতর্ক, চাপানউতোর, বিরোধীদের হাজারো অভিযোগ। বেলাগাম অনুব্রতকে লাগাম দিতে ভোটের আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে কমিশনের দাওয়াইয়ে নজরবন্দি বীরভূমের দাপুটে নেতা। আধা সেনার নজরের সঙ্গে ভোটের দিন তামাম সংবাদ মাধ্যমেরও চোখ যে কেষ্টর ওপরে থাকবে তা আর আশ্চর্য কী?

পাচারকারী সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক পেটাল এলাকার লোকজন পাচারকারী সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক পেটাল এলাকার লোকজন

পাচারকারী সন্দেহে এক যুবককে বেধড়ক পেটাল এলাকার লোকজন। দেবাশিস চৌধুরী নামের ওই ব্যক্তির বাড়ি ইসলামপুরে। জানা যায়, ওই এলাকারই এক তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়ে যায় দেবাশিস চৌধুরী। তরুণী এখন মুম্বইয়ে রয়েছেন। মুম্বই থেকে ফোন করে ওই তরুণী বাড়িতে গোটা ঘটনা জানান। মুম্বই থেকে তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়ার কথাও বলেন তরুণী। ইতিমধ্যেই ওই যুবক গ্রামের আরও এক তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়। গোটা ঘটনা জানাজানি হতেই, এলাকায় শোরগোল পড়ে যায়। বর্তমানে যে তরুণীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে দেবাশিস, তার মাধ্যমে ডেকে পাঠানো হয়। দেবাশিসকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে এলাকার লোকজন। শুরু হয় বেধড়ক মারধর। ঘণ্টাখানেক পর বহরমপুর থানার পুলিস এসে যুবককে গ্রেফতার করে।

ফের উত্তপ্ত বীরভূমের বাহিরি গ্রাম ফের উত্তপ্ত বীরভূমের বাহিরি গ্রাম

ফের উত্তপ্ত বীরভূমের বাহিরি গ্রাম। রাতভর বোমাবাজি, লুঠপাট। কিছুদিন আগেই উত্তেজনা হয়েছিল গ্রামে। কটা দিন কাটতে না কাটতেই ফের একইরকম। এবার এলাকদখলকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর বচসার জেরেই সংঘর্ষ বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যাচ্ছে, গদাধর হাজরা বনাম কাজল শেখ গোষ্ঠীর মধ্যে লড়াইয়ের জেরেই উত্তেজনা।  গ্রামের বেশ কয়েকটি বাড়িতে লুঠপাটও চালায় হামলাকারীরা। দাবি প্রত্যক্ষদর্শীদের। আতঙ্কের জেরে এলাকা ছাড়ছেন গ্রামবাসীরা। ঘটনার খবর পেয়ে ইতিমধ্যেই বাহিরি গ্রামে বিশাল পুলিসবাহিনী। যদিও এখনও পর্যন্ত গ্রামের উত্তেজনা কাটেনি। বরং, খানিকটা আতঙ্কেই রয়েছেন গ্রামবাসীরা।

 বারবার আদালতের ভর্তসনাতেও বদলাচ্ছে না বীরভূমের পুলিস! বারবার আদালতের ভর্তসনাতেও বদলাচ্ছে না বীরভূমের পুলিস!

বারবার আদালতের ভতর্‍সনাতেও বদলাচ্ছে না বীরভূমের পুলিস। পুলিস সুপারকে নির্দেশ দিয়েও কাজ না হওয়ায়, ক্ষুব্ধ আদালত এবার নির্দেশ দিল রাজ্য পুলিসের ডিজিকে।  দুটি ভিন্ন মামলায় ফের আদালতের তিরস্কারের মুখে সিউড়ি পুলিস।সিউড়ি হোক বা  মহম্মদবাজার। পুলিসের কাজে চরম অসন্তুষ্ট আদালত। বিচারক নিগ্রহের ঘটনায় সপ্তাহ খানেক আগে আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছিলেন সিউড়ি থানার IC সমীর কুপ্তি।  জমি সংক্রান্ত একটি মামলায় ফের আদালতের তিরস্কারের মুখে সেই একই  IC। এবং আবারও  নিঃশর্তে ক্ষমাপ্রার্থনা করলেন তিনি।   তবে আদালতে ক্ষমা চাইলেও কোর্টের বাইরে সমীর কুপ্তিকে দেখা গেল সম্পূর্ণ অন্য মেজাজে।

আজ বীরভূমে বাউলদের পাশে মুখ্যমন্ত্রী আজ বীরভূমে বাউলদের পাশে মুখ্যমন্ত্রী

বাউল গান ভালোবাসেন মুখ্যমন্ত্রী। বাউলদের জীবনযাত্রায় যাতে একটু স্বাচ্ছন্দ্য আনা যায় তা নিয়েও বারবার সচেষ্ট হতে দেখা গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কখনও তুলে দিয়েছেন তানপুরা, কখনও মাসোহারা। বাউল সম্প্রদায়ের কাছে জয়দেবের মেলা অত্যন্ত প্রিয়। আজ বীরভূমে সেই মেলারই উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী। শুধু মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনই নয়, বাউল সম্প্রদায়ের জন্য সরকারের তরফে বেশ কিছু সাহায্য-সহযোগিতারও ঘোষণা করা হবে। এর পিছনে শুধুই কি ভালোলাগা, নাকি রাজনীতির ছোঁয়াও রয়েছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বাউল সম্প্রদায়কে কাছে টানা,ভালোবাসার সঙ্গে রাজনীতির রসায়ন রয়েছে। এই অঞ্চল একসময় ছিল বামেদের স্বর্গরাজ্য। মাঝে কিছুদিন বিজেপি দাপিয়ে বেড়ালেও ফের নিয়ন্ত্রকের ভূমিকায় তৃণমূল কংগ্রেস। ভোটে বেশ কয়েকটি আসনে জেতা-হারার অঙ্ক নির্ভর করছে এই সম্প্রদায়ের ওপর। সেকারণেই কি ছুটে আসা মুখ্যমন্ত্রীর? রথ দেখা ও কলা বেচা দুটোই হবে।

 বীরভূমের তেঁতুলপাড়া এলাকায় উদ্ধার হল এক যুবতীর ক্ষতবিক্ষত দেহ বীরভূমের তেঁতুলপাড়া এলাকায় উদ্ধার হল এক যুবতীর ক্ষতবিক্ষত দেহ

বীরভূমের মহম্মদবাজার থানা এলাকার তেঁতুলপাড়া এলাকায় উদ্ধার হল এক যুবতীর ক্ষতবিক্ষত দেহ। এলাকার কাছেই একটি মাঠ সংলগ্ন জঙ্গল থেকে যুবতীর দেহ পাওয়া যায়।এখনও পর্যন্ত যুবতীর পরিচয় জানা যায়নি। মৃতদেহের মাথায় ভারি অস্ত্র দিয়ে আঘাতের বেশ কয়েকটি চিহ্ন রয়েছে। কে বা কারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত জানা যায়নি এখনও। দেহটি উদ্ধার করে মহম্মদবাজার থানার পুলিস। ময়নাতদন্তের জন্য যুবতীর দেহটি সিউড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিসের অনুমান বাইরে খুন করে দুষ্কৃতীরা দেহটি এখানে ফেলে দিয়ে গেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।