জানুন মোদী থেকে ওবামা, শীর্ষ বিশ্বনেতারা কোন স্মার্টফোন ব্যবহার করেন

জানুন মোদী থেকে ওবামা, শীর্ষ বিশ্বনেতারা কোন স্মার্টফোন ব্যবহার করেন

তথ্যপ্রযুক্তির দুনিয়া এখন। সাধারণ মানুষ থেকে নেতা মন্ত্রী এবং দেশের মাথারা সবাই এখন স্মার্টফোনের ভক্ত। প্রত্যেকের হাতেই হাই-ফাই ফিচার্সের নানারকমের স্মার্টফোন। স্মার্টফোনই একমাত্র জড়বস্তু, যা সমস্ত শ্রেণীর মানুষকে একসঙ্গে বশীভূত করতে পেরেছে। আমরা প্রত্যেকেই এখন স্মার্টফোন ব্যবহার করি। কিন্তু এটা কি জানেন, আমাদের বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশনেতারা কোন স্মার্টফোন ব্যবহার করেন? আপনিও যে স্মার্টফোন ব্যবহার করছেন। হয়তো সেই একই স্মার্টফোন ব্যবহার করছেন আপনার প্রিয় দেশনেতাও। তাই দেখে নিন বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মাথারা কোন স্মার্টফোন ব্যবহার করেন।

এঁরা কেন এত সফল? এঁরা কেন এত সফল?

 পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি এমন কিছু মানুষের সঙ্গে যাঁরা জীবনে সফল এবং এই মানুষগুলো প্রতিটা মুহূর্তে আমাকে, আপনাকে, আমাদের সবাইকে উদ্বুদ্ধ করছেন। এঁরা কেউ রাষ্ট্রনায়ক, কেউ ক্রিকেটার, কেউ কর্পোরেট কোম্পানির হত্তাকর্তা আবার কেউ কোটি কোটি টাকার সম্পত্তির মালিক। এঁদের প্রত্যেকের জীবনেই সাফল্য এসেছে জীবনের নানান চড়াই উতরাই পেরিয়ে। তবে একটি মাত্র চাবিকাঠি এমন যা সবার ক্ষেত্রে একই থেকেছে, তা হল- "Wake up an hour early to live an hour more"।     

 সন্ত্রাস দমনে পাকিস্তানের ওপর চাপ বাড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা সন্ত্রাস দমনে পাকিস্তানের ওপর চাপ বাড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা

  সন্ত্রাস দমনে পাকিস্তানের ওপর চাপ বাড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। বললেন, শরিফ সরকারকে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখাতেই হবে। জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করতে আরও কড়া পদক্ষেপ করতে হবে ইসলামাবাদকে। সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া সাক্ষাত্‍কারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ভারত দীর্ঘদিন ধরে সন্ত্রাসবাদের স্বীকার। পাঠানকোট হামলা তারই এক উদাহরণ। তবে, সন্ত্রাস দমনে ইদানিং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ যেভাবে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ রেখে চলেছেন তার প্রশংসা করেছেন ওবামা। পাঠানকোট হামলার পরও এই উদ্যোগ চালু থাকার কৃতিত্ব প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেই দিয়েছেন তিনি। মোদী ক্ষমতায় আসার পর দিল্লি-ওয়াশিংটন সম্পর্ক আরও মজবুত হয়েছে বলেও জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

নিজে ফোন করে মোদীকে ধন্যবাদ জানালেন ওবামা নিজে ফোন করে মোদীকে ধন্যবাদ জানালেন ওবামা

এবছর ঐতিহাসিক সাফল্য পেয়েছে প্যারিসের বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন। এর সিংহভাগ কৃতিত্বই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দিলেন, আমেরিকার রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা। এজন্য নিজে ফোন করে নরেন্দ্র মোদীকে ধন্যবাদও জানালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। টেলিফোনে তিনি নরেন্দ্র মোদীকে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সদর্থক ভূমিকা এবং নেতৃত্বের জন্যই এটা সম্ভব হয়েছে। এবছর একশো পচানব্বইটি দেশ অংশ নেয় ওই সম্মেলনে। দু সপ্তাহের টানা আলোচনা-বিতর্ক শেষে বিশ্ব উষ্ণায়ন রোধে ঐকমত্যে পৌঁছেছে সব দেশ। সম্মেলনের একফাঁকে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে আলাদাভাবে কথাও হয় মার্কিন প্রেসিডেন্টের। সেই কথা যে বেশ খানিকটা ফলপ্রসূ হয়েছে, সেটাই বলাই যায়, ওবামার, নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করা নিয়ে।

'সিরিয়ায় বিমান হামলা হলে উড়বে ওয়াশিংটন ডিসি', হুমকি আইসিসের, আমেরিকার ওপর চাপ বাড়ালেন পুতিনও   'সিরিয়ায় বিমান হামলা হলে উড়বে ওয়াশিংটন ডিসি', হুমকি আইসিসের, আমেরিকার ওপর চাপ বাড়ালেন পুতিনও

সিরিয়ায় আইসিস ঘাঁটিতে হামলার জেরে এবার আমেরিকা সহ পশ্চিমি জোটকে পাল্টা হুঁশিয়ারি। সিরিয়ায় যারা বিমান হানা চালাবে তাদেরও ফ্রান্সেরই দশা হবে।  পাল্টা হামলার হুমকি  দিল ইসলামিক স্টেট। ওয়াশিংটনেও  হামলা চালানো হবে বলে  হুমকি ভিডিওয়ে দাবি জঙ্গি সংগঠনের।

জি-টুয়েন্টি সম্মেলনে আইসিস নিকেশ করার সংকল্প মোদী-ওবামা-পুতিনদের জি-টুয়েন্টি সম্মেলনে আইসিস নিকেশ করার সংকল্প মোদী-ওবামা-পুতিনদের

প্যারিসের হামলার পর আইসিসকে নিকেশ করার সংকল্প জি-টুয়েন্টিভুক্ত দেশগুলি। আইসিস বিরোধী অভিযানে চারগুণ শক্তি নিয়ে ঝাঁপাবে আমেরিকা। জি-টুয়েন্টি শীর্ষ সম্মেলনে ঘোষণা করলেন বারাক ওবামা। বললেন, এ শুধু ফ্রান্স নয়, গোটা মানবসভ্যতার ওপরই বর্বরোচিত হামলা। তুরস্কে কড়া নিরাপত্তার মাঝে জি-টুয়েন্টি সম্মেলনে যোগ দিয়ে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে এককাট্টা হয়ে লড়াইয়ের ডাক দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও।

আপনি কি ওবামার বন্ধু হতে চান? আপনি কি ওবামার বন্ধু হতে চান?

"বারাক আপ ফেসবুক পে কিউ নেহি আতে হো"? 'চায়ে পে চর্চা'য় 'বারাকের বন্ধু' মোদী নাকি গল্প করতে করতে বারাককে ফেসবুকে আসার জন্য অনুরোধ করেছিলেন, এমনটাই 'গুজব' ছড়িয়েছে নেটিজেনদের মধ্যে। আর তার কারণ হল বারাক ওবামা হঠাৎ যখন ফেসবুকে এলেন। এতদিন টুইটারে ছিলেন, সোমবার নিজের ফেসবুকে  অ্যাকাউন্ট খুললেন বারাক হোসেন ওবামা।

 ওবামার সময়, জুকারবার্গের সমর্থন পেল ১৪-এর আহমেদ মহম্মদ ওবামার সময়, জুকারবার্গের সমর্থন পেল ১৪-এর আহমেদ মহম্মদ

এইতো চলতি সপ্তাহের সোমবার। হাতে তৈরি একটা নিরীহ অ্যালার্ম ঘড়ি। তার জেড়েই টেক্সাসের স্কুল থেকে সাসপেন্ড হতে হয়েছিল ১৪ বছরের আহমেদ মহম্মদকে। স্কুল আধিকারিকদের অভিযোগ ছিল স্কুলে নকল বোম নিয়ে ঘুরছে আহমেদ। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই তার কিশোর হাতে হাতকড়া পরিয়েছিল পুলিস। বুধবারের মধ্যেই আমূল বদলে গেল দুঃস্বপ্নের সেই অধ্যায়। সেই অ্যালার্ম ঘড়িই তাকে উপহার দিল খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে কিছুটা সময়। ঘড়ি সহ তার ডাক পড়ল হোয়াইট হাউস থেকে। তার সমর্থনে এগিয়ে এলেন হিলারি ক্লিন্টন, মার্ক জুকারবার্গ। 

প্রেসিডেন্ট পদের লড়াইয়ে প্রচারের ময়দানে নেমে পড়লেন হিলারি ক্লিন্টন প্রেসিডেন্ট পদের লড়াইয়ে প্রচারের ময়দানে নেমে পড়লেন হিলারি ক্লিন্টন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে প্রচার শুরু করে দিলেন হিলারি রডহ্যাম ক্লিন্টন। আইওয়া থেকেই প্রচার শুরু করলেন একসময়ের মার্কিন ফার্স্ট লেডি।

 ওবামানামা ওবামানামা

মার্কিন প্রেসিডেন্টের ভারত সফর। সরগরম নয়াদিল্লি। দুই রাষ্ট্রপ্রধানের আড্ডা। বাগানে বসে চায়ের কাপে চুমুক। সারাদিনের নানা খবরাখবর নিয়ে একনজরে--ওবামানামা।

হায়দরাবাদ হাউসে ওবামার সঙ্গে 'চায় পে চর্চা' মোদীর হায়দরাবাদ হাউসে ওবামার সঙ্গে 'চায় পে চর্চা' মোদীর

হায়দরাবাদ হাউসে মধ্যাহ্নভোজের পর এক চা চক্রে একান্তে মিলিত হলেন মোদী ও ওবামা। হায়দরাবাদ হাউসের বাগানের কিছুক্ষণ পায়চারি করেন দুই রাষ্ট্রনেতা। তারপর চায়ের টেবলে বসে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয় দুজনের। ওবামা-মোদী বৈঠক নিয়ে কৌতুহলী রাজনৈতিক মহল।

রাজঘাটে গিয়ে মহাত্মাকে শ্রদ্ধা জানালেন ওবামা রাজঘাটে গিয়ে মহাত্মাকে শ্রদ্ধা জানালেন ওবামা

মহাত্মা গান্ধী বিশ্বের কাছে এক বিরল উপহার। রাজঘাটে শ্রদ্ধা জানিয়ে ভিজিটর বুকে একথাই লিখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি লেখেন, ভারতের জনজীবনে এখনও মহাত্মা গান্ধীর আদর্শ রয়ে গেছে। বিশ্ববাসীর মধ্যে ভালবাসা ও শান্তির সেই আদর্শ চিরস্থায়ী হবে বলেও আশাপ্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। যে কোনও বিদেশি রাষ্ট্রনেতাই ভারতে এলে রাজঘাটে জাতির জনককে শ্রদ্ধা জানান।

ওবামার আগ্রা সফর বাতিল, সাক্ষাতে 'বাহ তাজ' বলা হচ্ছে না মার্কিন প্রেসিডেন্টের ওবামার আগ্রা সফর বাতিল, সাক্ষাতে 'বাহ তাজ' বলা হচ্ছে না মার্কিন প্রেসিডেন্টের

মার্কিন প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তায় শেষপর্যন্ত দিল্লির রাজপথ এবং সংলগ্ন এলাকাকে নো ফ্লাইং জোন করা হচ্ছে। এই সিদ্ধান্তের পরই ড্রোন দিয়ে নজরদারির পথ থেকে সরে এসেছে মার্কিন প্রশাসন। তবে এতকিছুর পরও সেই নিরাপত্তার গেরোয় আটকে গেল ওবামার আগ্রা সফর। মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার দেওয়া রিপোর্টের ভিত্তিতেই আগ্রা সফর বাতিলের সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়েছে।