ধোনির গ্লাভস নিয়ে এত বাড়াবাড়ি বলে প্রতিবাদটা করলাম

Updated By: Mar 26, 2016, 10:20 PM IST
ধোনির গ্লাভস নিয়ে এত বাড়াবাড়ি বলে প্রতিবাদটা করলাম

স্বরূপ দত্ত

 

এটা সেই অর্থে শুধুই কোনও লেখা নয়। এটা ইতিহাস যেন বিকৃত হয়ে না যায়, তারজন্য নিজের পক্ষ থেকে যতটা সম্ভব একটা প্রতিবাদ বলতে পারেন। আর দশজনের মতো ক্রিকেট পছন্দ করি আমিও। আর দশজনের মতোই মহেন্দ্র সিং ধোনিকে পছন্দ করি আমিও। আর দশজনের মতোই বাংলাদেশকে, ভারত সেদিন হারানোয় খুশি হয়েছি আমিও। কিন্তু তারপর থেকে যা যা চলছে, তাতে আর খুব খুশি থাকতে পারলাম কোথায়! তাই নিজে থেকে একটা প্রতিবাদ করে রাখলাম। ধোনি বা ভারতের জয়ের বিরুদ্ধে নয়। 'কিছু সংবাদ মাধ্যম'-এর বিরুদ্ধে এবং যাঁরা এমনটা চাউর করছেন তাঁদের বিরুদ্ধে। প্রশ্ন হল, কী সেটা? বলছি।

ধোনির ওই গ্লাভস খুলে ফেলাটা রীতিমতো বীর গাঁথা, জয় গাঁথা, মালা গাথা হয়ে উঠেছে মানুষের মনে মনে। কোনও আপত্তি নেই। ভালোই তো। মহেন্দ্র সিং ধোনির এই প্রশংসা প্রাপ্য। আর সেদিন শুধু নয়, এমনটা অনেক ক্ষেত্রেই তিনি করে থাকেন। কিন্তু ধোনি আর তাঁর গ্লাভস নিয়ে যেভাবে প্রচার চলছে, তাতে আমাদের দেশের কোনও ক্রীড়াবিদের সঙ্গে গ্লাভস বা দস্তানা জুড়তে গেলে হয়তো ভবিষ্যত্‍ প্রজন্ম ধোনির কথাই বলবেন বা ধোনির ছবিই দেবেন। আর সেখানেই আমার প্রতিবাদ। তাহলে ইতিহাসটাই বিকৃত হয়ে যাবে সেদিন। আগামীতে ঠিকমতো ব্যাখ্যা হবে না আজকের সত্যিটার। মহেন্দ্র সিং ধোনির জন্য ক্যাপ্টেন কুল, হেলিকপ্টার, সাফল্য এগুলো সবসময় জুড়ে থাক। গ্লাভসও থাক। কিন্তু এতটা কখনও নয়, যাতে গ্লাভস মানেই ভারতীয় ক্রীড়াক্ষেত্রে ধোনি বোঝায়। যেমন লেভ ইয়াসিন আর গ্লাভস এই দুটোকে কি কখনও আলাদা করতে পারবেন? হয় না তা। ও দুটো সমার্থক শব্দ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু ধোনি আর গ্লাভসকে একইরকম সমার্থক শব্দ বানিয়ে ফেললে ভুল হবে ভারতীয় ক্রীড়াক্ষেত্রে।

আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, ধোনির আগেও ভারতীয় ক্রীড়াক্ষেত্রে অন্তত দুজন সবসময় থাকবেন, যাঁদের কথা মাথায় বা মনে আসলেই গ্লাভস ভেসে আসবে। সেই দুজন কে এবং কেন, তার ব্যাখ্যাও দিয়ে দিই।

১) মেরি কম - তিনি খেলেন বক্সিং। গ্লাভস তাই মাস্ট। ভদ্রমহিলা আমাদের দেশের হয়ে কী করেছেন? মাত্র পাঁচবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। আর হ্যাঁ, বাড়িতে একটা অলিম্পিক মেডেল আছে তাঁর। তিনি জীবনে আর কী কী পেয়েছেন, সেই হিসেব আপনি সময় মতো দেখে নেবেন। আমার তাঁর হয়ে শুধু দুটো জিনিস বলার। এক, মেরি কম, মহিলা। তাও আমাদের দেশের। ভারতের। এবং পূর্ব প্রান্তের! ভোটের সময় ছাড়া ওই পূব দিকের কথা কে আর মনে রাখে! এ দেশের মেয়েদের তো চিরকাল শুধু অবলা করেই রেখেছে সমাজ। সেই ভারতের মেয়ের ঘুসিতে গোটা বিশ্বের শক্তিশালী মহিলারা কুপোকাত্‍। তিনি যখন বিদেশে বড় প্রতিযোগিতায় লড়ছেন, সেইসময় তাঁর ছোট্ট শিশুটার মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার চলছে। না মেরি ফিরতে পেরেছেন তাঁর সন্তানের কাছে, না মেরি খেলা থেকে দূরে যেতে পেরেছেন। মেরি শুধু যেটা পেরেছেন তাহলো, নিজের হাতের গ্লাভসটা দিয়ে বিপক্ষকে শুইয়ে দিয়েছেন রিংয়ে। গর্বিত আপনাকে কতটা করতে পেরেছে জানা নেই, কিন্তু নিজের সমস্ত কষ্টকে এক ঘুসিতে উড়িয়ে দিতে পেরেছেন। আর যাই হোক, মেরি কমের গ্লাভসের আগে ধোনির গ্লাভসকে কোনওদিন বসাতে পারব না। মানসিক অন্যায় করে ফেলেছি বলে ভূগব। তাই আপনাদেরও অনুরোধ করা, ধোনির গ্লাভসকে গুরুত্ব দিন। কিন্তু গ্লাভস মানেই ধোনির আগে মেরি কমের নামটা বলতে কোনওদিনও ভুলবেন না।

২) বিজেন্দর কুমার - তিনিও বক্সিং খেলোয়াড়। তাই গ্লাভস তাঁর ক্ষেত্রেও মাস্ট। কী করেছেন এই খেলোয়াড়? তিন পয়েন্টে শেষ করে দিই। বক্সিংয়ে বিশ্বের এক নম্বর বিবেচিত হয়েছেন। বাড়িতে একটা অলিম্পিক মেডেল রেখেছেন। আর এ দেশে আগামিদিনে কখনও বক্সিং জনপ্রিয় হলে, তাঁর ক্রেডিটটাও বিজেন্দরেরই। এত কিছুর পরেও আরও একটা কথা বলতে চাই বিজেন্দর প্রসঙ্গে। সেটা হল, বিজেন্দর এখন পেশাদার বক্সিং খেলোয়াড়। প্রথম ভারতীয় হিসেবে। সব ম্যাচই জিতছেন। আর ওই প্রথম ম্যাচটা ভুলে গেলে চলবে? ইংল্যান্ডের অভিজ্ঞ বক্সারকে সাত রাউন্ডের ম্যাচের ৩ রাউন্ডেই ফেলে শুইয়ে দিয়েছিলেন রিংয়ে। আরও একবার চোখ বুজে ভাবুন, ২০০ বছর যে ইংরেজ আমার, আপনার পূবপুরুষদের উপর অকথ্য অত্যাচার করেছে, সেই ইংরেজকে, ইংল্যান্ডের মাটিতে, খেলার মাঝপথেরও আগে শুইয়ে দিয়েছেন! কী বলবেন? বিজেন্দরের এই ঋণ কখনও শোধ করতে পারবেন? আমি আন্তত পারবো না।

তাই একান্ত অনুরোধ থাকলো, ধোনিকে মাথার উপর রাখুন। ধোনির গ্লাভসকেও তাই। কিন্তু এত বাড়াবাড়ি করে ফেলবেন না, যাতে, ধোনির ওই গ্লাভসের আড়ালে মেরি কম আর বিজেন্দরের গ্লাভস ঢাকা পড়ে যায়। স্থির বিশ্বাস, সেটা সম্ভবও নয়। তবু কেন এত কথা খরচ করলাম? ওই যে ছেলেবলায় শিখেছিলাম, একটা কথা হাজার বার বললে, মিথ্যেটাও সত্যি হয়ে যায়। এই প্রচার সর্বস্ব যুগে তাই নিজের তরফ থেকে দস্তানার সঙ্গে দোস্তানাটা রেখে গেলাম। সঙ্গে আমার প্রতিবাদ। ধোনি হেলিকপ্টারের মতোই উপরে। কিন্তু গ্লাভসের ক্ষেত্রে, ধোনি অন্তত মেরি কম আর বিজেন্দরের থেকে পিছনে। জানি অনেক ভারতীয়কে বাদ দিলাম। আসলে ধোনির ওই গ্লাভস খোলাটা ঘটেছে যে ক্রিকেটে। আর ক্রিকেট এ দেশের ধর্ম। কীভাবে বিধর্মী হই বলুন?