ভারতে কি করোনার ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ শুরু হয়ে গেল? কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ফের করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭৮ হাজার ৭৬১ জন, যা এপর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। কেন এই পরিস্থিতি? 

Edited By: সুদীপ দে | Updated By: Aug 30, 2020, 01:28 PM IST
ভারতে কি করোনার ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ শুরু হয়ে গেল? কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা
—প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন: প্রতিদিনই ভারতে ৭০-৭৫ হাজার মানুষ নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন করোনায়। কিছুতেই রোখা যাচ্ছে না এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণকে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ফের করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৭৮ হাজার ৭৬১ জন, যা এপর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। দেশে এখন মোট করোনা আক্রান্তর সংখ্যা ৩৫ লক্ষ ৪২ হাজার ৭৩৩ জন।

কেন এই পরিস্থিতি? ভারতে কি তাহলে করোনার ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ শুরু হয়ে গেল? কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে শনিবার পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৬২ হাজার মানুষের। বিগত ১০ দিনে দেশে করোনা সংক্রমণের হার বেশ উদ্বেগজনক! দেশের ২০টি বড় রাজ্যের মধ্যে ১০টিতেই করোনা সংক্রমণের ‘সেকেন্ড ওয়েভ’-এর ইঙ্গিত মিলেছে।

মহারাষ্ট্রে মোট করোনা আক্রান্তর সংখ্যা ৭ লক্ষ ৬৪ হাজার ২৮১ জন। প্রাণ হারিয়েছেন ২৪ হাজার ১০৩ জন। মহারাষ্ট্রের পরেই দেশে করোনা বিধ্বস্ত তামিলনাড়ু। সেখানে মোট করোনা আক্রান্তর সংখ্যা ৪ লক্ষ ১৫ হাজার ৫৯০। প্রাণ হারিয়েছেন ৭ হাজার ১৩৭ জন। অন্ধ্র প্রদেশেরও বেহাল অবস্থা। সেখানে মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লক্ষ ১৪ হাজার ১৬৪ জন। রাজ্যে মোট করোনার বলি ৩ হাজার ৭৯৬ জন।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে করোনার ক্রমবর্ধমান ‘পজেটিভ রিপোর্ট’ যা র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টের ক্রমবর্ধমান সংখ্যার প্রেক্ষাপটে বিশেষ উদ্বেগজনক! বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সবই হয়তো করোনা সংক্রমণের ‘সেকেন্ড ওয়েভ’-এর প্রাথমিক পর্যায়ের ইঙ্গিত। এই পরিস্থিতি কতদিন পর্যন্ত চলতে পারে বা কোন পর্যায়ে পৌঁছাবে, তা এখনই বলা সম্ভব নয়। তবে পরিস্থিতির উপর দ্রুত নিয়ন্ত্রণ পেতে হলে এখনই তৎপর হতে হবে।

আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণ রুখতে ২ মিটারের দূরত্বও যথেষ্ট নয়! সতর্ক করলেন বিজ্ঞানীরা

সারা বিশ্বে লক্ষাধিক মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনাভাইরাস। প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন এই ভাইরাসে। মে মাসে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)-এর পক্ষ থেকে ডঃ মাইক রায়ান জানান, আর মাস খানেকের মধ্যেই ভাইরাসের ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ শুরু হবে বিভিন্ন দেশে। ওই সময় অনেক দেশেই করোনা পরিস্থিতি চরমে পৌঁছাতে পারে। তখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে বেশ কয়েক মাস লেগে যেতে পারে বলে জানান ডঃ রায়ান। আমেরিকা, দক্ষিণ এশিয়া ও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের কথা উল্লেখ করেন তিনি। পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে, তাকে ভারতেও করোনা সংক্রমণের ‘সেকেন্ড ওয়েভ’ শুরু হওয়ারই ইঙ্গিত বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।