১০০ বছর বেঁচে থাকার রহস্য!

'দীর্ঘায়ু হোক বাছা!' ছোট থেকেই আমরা দেখে আসি বড়রা আশির্বাদ করতেন এই বলে। আবার ভালো কাজ করার পর সকলকে সাহায্য করার জন্য ছোটদের শত আয়ুরও কামনা করতে দেখা গেছে অনেককে। কিন্তু এখন ১০০ বছর বেঁচে থাকা কি সম্ভব? এর উত্তরে অনেকেই বলেন বেশ কিছু বছর আগে হলেও তা সম্ভব ছিল। কিন্তু এখনকার সময় দাঁড়িয়ে ১০০ বছর বেঁচে থাকা কখনওই সম্ভব নয়। কারণ মানুষের বেঁচে থাকার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় দূষণ, ভ্যাজাল খাবার ইত্যাদি।

Updated By: Dec 21, 2015, 11:08 PM IST
১০০ বছর বেঁচে থাকার রহস্য!

ওয়েব ডেস্ক: 'দীর্ঘায়ু হোক বাছা!' ছোট থেকেই আমরা দেখে আসি বড়রা আশির্বাদ করতেন এই বলে। আবার ভালো কাজ করার পর সকলকে সাহায্য করার জন্য ছোটদের শত আয়ুরও কামনা করতে দেখা গেছে অনেককে। কিন্তু এখন ১০০ বছর বেঁচে থাকা কি সম্ভব? এর উত্তরে অনেকেই বলেন বেশ কিছু বছর আগে হলেও তা সম্ভব ছিল। কিন্তু এখনকার সময় দাঁড়িয়ে ১০০ বছর বেঁচে থাকা কখনওই সম্ভব নয়। কারণ মানুষের বেঁচে থাকার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় দূষণ, ভ্যাজাল খাবার ইত্যাদি।

কিন্তু জানেন কি এখনও কিন্তু অনায়াসেই আপনিও বেঁচে থাকতে পারবেন ১০০ বছর। তার টোটকাও কিন্তু আপনার হাতেই আছে। শুনে অবাক হলেও এটাই কিন্তু সত্যি। স্ট্যান্ডফ্রোড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ক্রিস্টেন ফর্টনি এবং তাঁর বেশ কয়েকজন সহকর্মী মিলে একটি গবেষণা চালান। যার মাধ্যমে ১৪টি রোগ ধরা পড়েছে। যার মানুষের বেশি বছর বাঁচার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। 'জিওয়াস' নামে একটি পরিসংখ্যানগত পদ্ধতি আবিষ্কার করা হয়েছে। যার মাধ্যমে মানুষের বাধর্ক্য জনিত বিভিন্ন রোগ সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল হওয়ার পরেই তার ওপর চিকিৎসা করা হবে। এই ভাবেই মৃত্যুকে রোধ করা সম্ভব হবে। যার জন্য অনায়াসেই ১০০ বছর বাঁচতে পারবেন আপনিও।