কংগ্রেসের অফিসে তাণ্ডব বিজেপির, ৭০ বছরের 'চাচা'কে মার, বিধান রায়ের মূর্তিতে ঢিল

পুলিস সামাল দিতে গেলে তাদের গায়েও ছেটানো হয় কালি।

Updated By: Nov 16, 2019, 05:59 PM IST
কংগ্রেসের অফিসে তাণ্ডব বিজেপির, ৭০ বছরের 'চাচা'কে মার, বিধান রায়ের মূর্তিতে ঢিল

মৌমিতা চক্রবর্তী: রাফাল চুক্তিতে কেলেঙ্কারির অভিযোগে 'চৌকিদার চোর হ্যায়' স্লোগান তুলেছিলেন রাহুল গান্ধী। তাঁকে সতর্ক করেছে সুপ্রিম কোর্ট। শনিবার রাহুলের ক্ষমাপ্রার্থনা দাবি করে রাজ্যে কংগ্রেসের সদর দফতরে রীতিমতো তাণ্ডব চালাল একদল বিজেপি সমর্থক। বিধানভবনে রাহুলের ফ্লেক্স ছিঁড়ে দেওয়া হয়। কালি ছিটিয়ে দেওয়া হয় ব্যানারে। 

শনিবার রামলীলা ময়দান থেকে মিছিল শুরু করে বিজেপির যুব মোর্চা। সেই মিছিল এগিয়ে যায় বিধানভবনের কাছে। সেখানে চালানো হয় তাণ্ডব। বিধানভবনের গেটে থাকা ৭০ বছরের আব্দুল জব্বারকে শারীরিকভাবে প্রহৃত করা হয় বলে অভিযোগ। তাঁর গায়ে ছিটিয়ে দেওয়া হয় কালি। বিধান রায়ের মূর্তিতেও ঢিল মারে বিজেপির সমর্থকরা। কংগ্রেস কর্মীদের অভিযোগ, জয় শ্রী রাম ধ্বনি দিতে দিতে হামলা চালানো হয়েছে। 

শুধু তাই নয়, পুলিস সামাল দিতে গেলে তাদের গায়েও ছেটানো হয় কালি। যুব মোর্চার উত্তর কলকাতার সদস্য শ্যাম জয়সওয়াল বলেন,''রাফাল নিয়ে দেশকে মিথ্যা বলেছিলেন রাহুল গান্ধী। প্রধানমন্ত্রীকে ক্লিনচিট দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। রাহুলকে এখন ক্ষমা চাইতে হবে।''      

ঘটনাস্থলে পুলিস গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। ছত্রভঙ্গ করা হয় বিজেপি সমর্থকদের। দুপুরে আবার সেন্ট্রালে বিজেপির রাজ্য দফতরের সামনে বিক্ষোভ দেখান কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকরা। 

রাফাল মামলায় বৃহস্পতিবার রায়ের পুনর্বিবেচনার আবেদন খারিজ করে দেয় প্রধান বিচারপতি গগৈয়ের ৩ সদস্যের বেঞ্চ। তদন্ত নিষ্প্রয়োজন বলে জানায় সুপ্রিম কোর্ট। একইসঙ্গে রাহুল গান্ধীর নিঃশর্ত ক্ষমাপ্রার্থনা গ্রহণ করেছে আদালত। তবে, এই ধরনের মন্তব্য করার আগে তাঁর সতর্ক থাকা উচিত বলে মনে করিয়ে দেয় বিচারপতিদের বেঞ্চ।

আরও পড়ুন- যুদ্ধে নামার আগে সংগঠন গুছিয়ে নিতে চাইছেন দিলীপ ঘোষরা, হতে চলেছে বড় রদবদল