সাতসকালে CBI দফতরে হাজির, কয়লা পাচারকাণ্ডে এবার জিজ্ঞাসাবাদ জ্ঞানবন্তকে

সিবিআই সূত্রে খবর, কয়লা পাচারের তদন্তে ব্যবসায়ী রণধীর বার্ণেয়ালকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিলেন তদন্তকারীরা

Updated By: May 4, 2021, 12:50 PM IST
সাতসকালে CBI দফতরে হাজির, কয়লা পাচারকাণ্ডে এবার জিজ্ঞাসাবাদ জ্ঞানবন্তকে

নিজস্ব প্রতিবেবেদন: কয়লা পাচারকাণ্ডে জ্ঞানবন্ত সিংকে কয়েকঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করল সিবিআই। আজ সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ সিবিআই দফতরে হাজিরা দেন তিনি। 

গত ১ মে জ্ঞানবন্তকে তলব করেছিল সিবিআই(CBI)। আসতে বলা হয়েছিল ৪ মে। সেইমতো আজ সকালেই সিবিআই দফতরে হাজির হন রাজ্যের ডিরেক্টর সিকিউরিট জ্ঞানবন্ত সিং(Gayanwant Singh)। সকাল এগারোটায় হাজির হতে বলা হলেও তিনি চলে আসেন সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ। সকাল সাড়ে আটটা পর্যন্ত তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বলে খবর।

আরও পড়ুন- 'হাতে সময় ৪ দিন, যা করার করে নিন', যোগী আদিত্যনাথকে ওড়ানোর হুমকি ফোনে

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন জ্ঞানবন্ত। মমতার কর্মসূচির জন্য় তাঁর দিনভর ব্যাস্ত থাকতে হতে পারে বলে তিনি সকালে আসতে চান বলে সিবিআইকে জানান। সেই মতো সকালেই কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার দফতরে চলে আসেন। এর আগে প্রাক্তন নিরাপত্তা উপদেষ্টা সুরজিৎ করপুরকায়স্থকেও ইডির(ED) তলবে ভোরবেলায় ইডির দপ্তরে যেতে দেখা গিয়েছিল। 

সিবিআই সূত্রে খবর, কয়লা পাচারের তদন্তে ব্যবসায়ী রণধীর বার্ণেয়ালকে জিজ্ঞাসাবাদ করেনিছলেন তদন্তকারীরা। তল্লাসি চালানো হয় তাঁর বাড়ি ও অফিসেও। সেই সূত্রেই জ্ঞানবন্তকে তলব করা হয় বলে খবর।

অন্যদিকে, হাইকোর্টের নির্দেশ থাকা সত্বেও সোমবার সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দেননি তৃণমূল নেতা বিনয় মিশ্র। ফলে এরপর তাঁর বিরুদ্ধে কী আইনি পদক্ষেপ নেওয়া যায় তা নিয়ে আইনজীবীদের পরামর্শ নিচ্ছে সিবিআই।

আরও পড়ুন-ঘূর্ণাবর্তের জেরে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বইবে ঝোড়ো হাওয়া

উল্লেখ্য, কয়লা পাচার কাণ্ডের তদন্তে গত ১২ এপ্রিল বাঁকুড়ার পুলিস সুপার কোটেশ্বর রাওকে তলব করে সিবিআই কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সূত্রে খবর, কয়লাকাণ্ডে অভিযুক্তদের বাড়িতে তল্লাসি চালিয়ে যেসব নথি পাওয়া গিয়েছে সেখানে কোটেশ্বর রাওয়ের নাম পাওয়া গিয়েছে। 

সিবিআই আগেই জানিয়েছিল, কয়লা-কাণ্ডের(Coal Smuggling) শিকড় অনেক গভীরে। তদন্ত করতে গিয়ে যাঁদের নাম সামনে আসছে, তাঁদের একটি তালিকা বানিয়েছে সিবিআই। সেই তালিকা অনুযায়ী, পুলিস আধিকারিকদের ডেকে পাঠানো হচ্ছে ও জেরা চলছে।