দিঘায় হোটেল লিজ নিতে যাওয়ার পথে খুন, মেচেদায় ট্রলি ব্যাগে উদ্ধার দেহ বউবাজারের হাসান আলির

দিঘায় বছরে ২১ লক্ষ টাকা লিজে একটি হোটেল নিতে চেয়েছিলেন হাসান আলি। ট্রলি ব্যাগের ভিতর থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার হয় দেহ।

Edited By: সুদেষ্ণা পাল | Updated By: Feb 27, 2020, 12:41 PM IST
দিঘায় হোটেল লিজ নিতে যাওয়ার পথে খুন, মেচেদায় ট্রলি ব্যাগে উদ্ধার দেহ বউবাজারের হাসান আলির

নিজস্ব প্রতিবেদন : মেচেদায় লোকাল ট্রেনের ভিতর উদ্ধার নিহত 'যুবকের' পরিচয় জানা গেল। নিহত ব্যক্তির নাম হাসান আলি। বয়স ৪৫ বছর। উত্তর কলকাতায় বউবাজারে বিবি গাঙ্গুলি স্ট্রিটে বাড়ি হাসান আলির। মঙ্গলবার রাতে মেচেদায় ট্রেনের ভিতর ট্রলি ব্যাগের মধ্যে হাসান আলির দেহ উদ্ধার করেন সাফাইকর্মীরা।

প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে, দিঘায় বছরে ২১ লক্ষ টাকা লিজে একটি হোটেল নিতে চেয়েছিলেন হাসান আলি। ১৫ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়ে গিয়েছিল। বাকি ৫ লক্ষ টাকা দিতে দিঘায় আসার জন্য কয়েকদিন আগে বাড়ি থেকে বের হন তিনি। তারপর থেকেই তাঁর আর কোনও সন্ধান পাচ্ছিলেন না পরিবারের লোকজন। তারপরই পাঁশকুড়া জিআরপিতে মিসিং ডায়েরি করেছিলেন বাড়ির লোকেরা। সেই সূত্র ধরেই ট্রলি ব্যাগের ভিতর উদ্ধার হওয়া নিহত ব্যক্তির পরিচয় খুঁজে বের করে পুলিস।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ মেচেদা পৌঁছয় ৩৮৩১৩ আপ হাওড়া-মেচেদা লোকাল। এর কিছু পর ট্রেনটি কারশেডে চলে যায়। তারপর রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ সাফাইকর্মীরা ট্রেন পরিষ্কার করতে আসেন। তখনই ট্রেনের ভিতর লাল রঙের একটি বড় ট্রলি ব্যাগ পড়ে থাকেন দেখেন সাফাইকর্মীরা। ট্রলি ব্যাগটি খুলতেই আঁতকে ওঠেন তাঁরা। ব্যাগ খুলতেই তার ভিতর থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় দেহটি উদ্ধার হয়। মৃতের পরনে ছিল সাদা রঙের জামা আর ছাই রঙা প্যান্ট। সঙ্গে সঙ্গেই সাফাইকর্মীরা আরপিএফ ও জিআরপি-কে খবর দেন। দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য তমলুক জেলা হাসপাতালে পাঠায় পাঁশকুড়া জিআরপি। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল।

আরও পড়ুন, কালনায় ফাঁকা বাড়িতে ঘরে ঢুকে ছাগলকে 'ধর্ষণ' যুবকের!

আরও পড়ুন, পরকীয়ায় বাধা, নিমতায় 'প্রেমিকদের' ডেকে এনে স্বামীকে পেটাল স্ত্রী!

মৃতের পরিচয় তখন জানা যায়নি। পরে পাঁশকুড়া জিআরপিতে করা মিসিং ডায়েরির সূত্র ধরে নিহতের পরিচয় জানতে পারে পুলিস। তবে কী কারণে হাসান আলিকে খুন করা হয়েছে, তা এখনও পরিষ্কার নয়। টাকা লুঠের উদ্দেশ্যেই কি খুন নাকি এর পিছনে কোনও ব্যবসায়িক শত্রুতা রয়েছে? তা নিয়ে ধন্দে পুলিস। পরিবারের অভিযোগ, দিঘায় হোটেল লিজ নেওয়ার জন্য কয়েকজন ব্রোকারকে টাকা দিতে যাওয়ার পথেই নিখোঁজ হয়ে যান হাসান । ব্রোকাররাই টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য এই খুন করেছে। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে খুনের ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।