close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

একমঞ্চে বাম-কংগ্রেস-বিজেপি, তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

"ঝুলি থেকে বেড়াল বেরিয়ে পড়েছে।" কটাক্ষ শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের।

Updated: Oct 30, 2018, 04:45 PM IST
একমঞ্চে বাম-কংগ্রেস-বিজেপি, তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদন : বেতন বৈষম্য নিয়ে পথে প্রাথমিক শিক্ষকরা। মঙ্গলবার দুপুরে বেতন বৈষম্যের অভিযোগে ডোরিনা ক্রসিং অবরোধ করলেন আন্দোলনরত প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকারা। এদিন প্রায় মিনিট ১৫ অবরুদ্ধ থাকে ব্যস্ত ডোরিনা ক্রসিং। যার জেরে তৈরি হয় যানজট। অবরোধ হঠাতে গেলে উত্তেজনা ছড়ায়। আন্দোলনকারীদের বিক্ষোভের মুখে পড়ে পুলিস। অবরোধের অভিযোগে এদিন বহু প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকাকে আটক করা হয়েছে। এই কর্মসূচিতে একমঞ্চে দেখা যায় বাম, বিজেপি ও কংগ্রেসকে। যা নিয়ে শোরগোল পড়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

আরও পড়ুন,ক্রেতা সেজে ফাঁদ সিআইডির, সোনা পাচার চক্রে রাজস্থান থেকে ধৃত ২

রাজ্যের প্রাথমিক স্তরের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের অভিযোগ, এরাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকারা অন্য রাজ্যের তুলনায় অনেক কম বেতন পান। যেখানে যোগ্যতার মাপকাঠিতে কেউ-ই কম নন। যোগ্যতার নিরিখে সকলে সমান। কিন্তু বেতম কাঠামোয় অনেক পিছিয়ে রাজ্যের শিক্ষকরা। তাই অবিলম্বে এই বেতন বৈষম্য দূর করার দাবি জানান তাঁরা। দাবি জানান, অবিলম্বে এরাজ্যে সর্বভারতীয় স্তরে প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য প্রচলিত বেতনক্রম  চালু করতে হবে।

সোমবার থেকেই শহিদ মিনারের সামনে মঞ্চ বেঁধে অবস্থান বিক্ষোভে বসেন রাজ্যের কয়েক হাজার প্রাথমিক শিক্ষক শিক্ষিকা। তাঁদের এই বিক্ষোভে যোগ দিয়েছেন সব বিরোধী দলের নেতারা-ই। প্রাথমিক শিক্ষকদের বিক্ষোভ মঞ্চে যোগ দিতে দেখা যায় সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী, কংগ্রেস নেতা আবদুল মান্নান, অধীর চৌধুরী, বিজেপির দিলীপ ঘোষ, জয় ব্যানার্জি প্রমুখকে। প্রাথমিক শিক্ষকদের এই বিক্ষোভ সভা আক্ষরিক অর্থেই একমঞ্চে নিয়ে আসে কংগ্রেস, বাম ও বিজেপিকে।

দেখুন, ৫ নভেম্বর খুলছে দক্ষিণেশ্বর স্কাইওয়াক, উদ্বোধনের আগে প্রথম ছবি

এদিকে বিরোধীরা একমঞ্চে দেখা যেতেই পাল্টা কটাক্ষ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, "ঝুলি থেকে বেড়াল বেরিয়ে পড়েছে। এরা যে সব একসাথে তা আমরা আগেই বলেছি। সেটাই আবার প্রমাণ হল। সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে একমাত্র মুখ যে মমতা, তা এদের একসঙ্গে রাজ্য সরকার বিরোধী আন্দোলনেই স্পষ্ট হল।"

আরও পড়ুন, ওদের কংগ্রেসের হাত ছাড়তে কে বলেছিল কে জানে? বামেদের কটাক্ষ সোমেনের

এদিকে, দাবি মানা না হলে আমরণ অনশনে বসার হুমকি দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। প্রসঙ্গত, সর্বভারতীয় স্তরে প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন ৯৩০০ টাকা থেকে ৩৪৮০০ টাকা, সঙ্গে গ্রেড পে ৪২০০ টাকা। সেখানে রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন অনেক কম। বেতন ৫৪০০ টাকা থেকে ২৫২০০ টাকা, গ্রেড পে-ও অনেক কম ২৬০০ টাকা।