নারদ মামলায় সমান্তরাল তদন্তের উপর সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি হাইকোর্টের

নারদ মামলায় সমান্তরাল তদন্তের উপর সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি করল কলকাতা হাইকোর্ট। আগামী ১৯ অগাস্ট এই মামলার পরবর্তী শুনানি। ততদিন পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ জারি থাকবে বলে জানিয়েছে প্রধানবিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ। নারদ ফুটেজের সত্যতা যাচাই করতে ফরেন্সিক পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট।

Updated By: Aug 5, 2016, 03:53 PM IST
নারদ মামলায় সমান্তরাল তদন্তের উপর সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি হাইকোর্টের

ওয়েব ডেস্ক: নারদ মামলায় সমান্তরাল তদন্তের উপর সাময়িক স্থগিতাদেশ জারি করল কলকাতা হাইকোর্ট। আগামী ১৯ অগাস্ট এই মামলার পরবর্তী শুনানি। ততদিন পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ জারি থাকবে বলে জানিয়েছে প্রধানবিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ। নারদ ফুটেজের সত্যতা যাচাই করতে ফরেন্সিক পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন- নারদ কেলেঙ্কারির সব খবর এক নজরে

নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলের ল্যাপটপ, পেন ড্রাইভ ও ,মোবাইল পরীক্ষা করা হয় চণ্ডীগড়ের CFSL-এ। সেই রিপোর্টও আজ হাই কোর্টে জমা পড়েছে। প্রধান বিচারপতি জানিয়েছেন সেই রিপোর্টে কিছু তথ্য উদ্ধার হয়েছে। কিছু তথ্য এখনও উদ্ধার হয়নি। তার পরেই সাময়িক স্থগিতাদেশের নির্দেশ দেন।

আরও পড়ুন-নারদকাণ্ডে 'ফেসবুকের নারদ'রা কী বলছেন?

স্টিং নিয়ে 'নারদ'-এর গাইড

"নারদ নিউজ ডট কমের ভিডিও যাচাই করা উচিত এবং প্রমাণিত হলে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া উচিত", মন্তব্য করেছিলেন বাংলা থেকে বিজেপি সাংসদ এস এস আলুওয়ালিয়ার।

"সারদাকাণ্ড থেকে নারদকাণ্ড, তৃণমূলের গোটা দলই লুঠে জড়িত", মন্তব্য করেছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী।

নারদ নিউজ ডট কমের কর্ণধার ম্যাথু স্যামুয়েলস জানিয়েছিলেন, "এই স্টিং অপারেশনে কোনও রকম রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র নেই"।

এই স্টিং অপারেশনে ৭০ লক্ষ টাকা ঘুষ হিসেবে তৃণমূল কংগ্রেসের বিভিন্ন নেতা মন্ত্রীকে দেওয়া হয়েছে বলে দেখানো হয়।

সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র ডেরেক অ'ব্রায়েনের অভিযোগ ছিল, "আমরা স্বচ্ছ। মমতা দিদির সততা নিয়ে কোনও প্রশ্নই নেই। বাংলার মানুষ জানে আমরা ভোটের জন্য ব্যস্ত। এই ভিডিও জাল"। এই নিউজ পোর্টালের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করা হবে বলে জানান, ডেরেক ও'ব্রায়েন।