CPM: ভোট শেষ, সংযুক্ত মোর্চাও শেষ, স্পষ্ট করলেন Yechury, একতরফা সিদ্ধান্ত: Adhir

সিপিএম একতরফাভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী।

Updated By: Sep 17, 2021, 06:04 PM IST
CPM: ভোট শেষ, সংযুক্ত মোর্চাও শেষ, স্পষ্ট করলেন Yechury, একতরফা সিদ্ধান্ত: Adhir

নিজস্ব প্রতিবেদন: ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১।  ব্রিগেডের ময়দানে বাম, কংগ্রেস ও আইএসএফ নেতাদের হাত ধরাধরির ছবি। ঘোষিত হল 'সংযুক্ত মোর্চা' (Sanyukta Morcha)। ভোটের ফল- শিবরাত্রির সলতের মতো আইএসএফের এক বিধায়ক। বাম ও কংগ্রেস শূন্য। ভোট ফুরোতেই মোর্চার প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। শুক্রবার সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি (Sitaram Yechury) স্পষ্ট বলে দিলেন,'নির্বাচন শেষ। মোর্চা শেষ।' 

খানিকটা 'ধরি মাছ না ছুঁই পানি'র মতো ২০১৬ সালে বাম-কংগ্রেস সমঝোতা হয়েছিল। জোট বলতে নারাজ ছিলেন সিপিএম নেতারা (CPM)। ভোটের পর পরিষদীয় রাজনীতিতে কাছাকাছি থাকলেও রাস্তাঘাটের কর্মসূচিতে আর দেখা যায়নি দুই শিবিরের নেতাদের। ২০১৯ সালে লোকসভা ভোটের আগে হাত ধরা নিয়ে আলোচনা চললেও ভেস্তে যায়। গত বিধানসভা ভোটে কংগ্রেস ও বাম জোটে অন্তর্ভুক্তি হয় আইএসএফের। তবে নির্বাচনী সাফল্য আসেনি। এর মধ্যে সনিয়া ও রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দিল্লি গিয়ে বৈঠক সেরে এসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। 'শূন্য' বামেদের চেয়ে 'বিজেপি-মর্দিনী' মমতাই যে বেশি দরকারি তা বুঝিয়ে দিয়েছে হাইকম্যান্ড। প্রদেশ নেতৃত্ব প্রস্তাব পাঠালেও ভবানীপুরে প্রার্থী দিতে চায়নি কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব। তখনই সংযুক্ত মোর্চার দেওয়াল লিখন স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। শুক্রবার জনতা দলের নজির টেনে ইয়েচুরি (Sitaram Yechury) বলেন,'মোর্চা ছিল বিধানসভা নির্বাচনের জন্য ছিল। নির্বাচন শেষ। মোর্চাও শেষ। ইন্দিরা গান্ধীকে হারাতে জনতা পার্টি তৈরি হয়েছিল। হারিয়ে দেওয়ার পর জনতা পার্টি শেষ। তৎকালীন পরিস্থিতির বিচারে জোট তৈরি হয়েছিল। ভোটের পর আর প্রাসঙ্গিকতা থাকে না।'             

বাম-কংগ্রেস জোট কতটা নীতিসম্মত তা নিয়ে ভোটের সময়ে প্রশ্ন উঠেছিল। ইয়েচুরির (Sitaram Yechury) এ দিনের বক্তব্যে আরও একবার প্রশ্ন উঠল, কেবলমাত্র নির্বাচনী সাফল্যের জন্যেই জোট? এমনটা হলে তো ভবিষ্যতেও জোটের বিশ্বাসযোগ্যতা থাকবে না। রাজনীতির কারবারিরা স্মরণ করিয়ে দিলেন, ১৯৭৭ সালে ইন্দিরা গান্ধীকে হঠিয়েছিল বিরোধী জোট, যে উদাহরণ ইয়েচুরি দিলেন। কিন্তু তার ৩ বছর পরই ইন্দিরা গান্ধী ক্ষমতায় ফেরেন। বাংলাতেই এই অবস্থা হলে ২০২৪ সালে সর্বভারতীয় মঞ্চে মোদী বিরোধী জোটের কি হাল হবে?                                

সিপিএম (CPM) একতরফাভাবে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী (Adhir Chowdhury)। Zee ২৪ ঘণ্টাকে ফোনে তিনি বলেন,'২০১৬ সালে জোট হয়েছিল। আমাদের সঙ্গে আলোচনা না করে ওরা নিজেরা ভেঙে দিয়েছিল। ২০২১ সালে আবার জোট হল। উভয়ে হেরেছি। তারা মনে করছে জোটের দরকার নেই। আমরা এ কথা বলিনি।' 

তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষের (Kunal Ghosh) কটাক্ষ, 'শূন্যের সঙ্গে শূন্য যোগ বা বিয়োগ হলে শূন্যই হয়। এটা দিশাহীন জোট ছিল। এরা হাত মিলিয়ে কিছু ভোট পাওয়ার চেষ্টা করেছিল যাতে বিজেপিকে সুবিধা করে দেওয়া যায়।' বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্যের কথায়,'মানুষ বাম-কংগ্রেস সুবিধাবাদী জোটকে ভরসা করেনি। ফলে বাংলার রাজনীতিকে দু'টি দলের মধ্যে মেরুকরণ করে দিয়েছে।'  

আরও পড়ুন- PM Modi-কে জন্মদিনের উপহার, দেশজুড়ে প্রতি মিনিটে ৪২ হাজার টিকা স্বাস্থ্যমন্ত্রকের

 (Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)