close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

নীতীশকে শুভেচ্ছা মমতার; জবাব এল, বাংলাকে 'মিনি পাকিস্তান' বানাচ্ছেন

জাতীয় দলের তকমা পেতে দিল্লি, ঝাড়খণ্ড, জম্মু-কাশ্মীর ও হরিয়ানা আলাদা লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত  নিয়েছে জেডিইউ। 

Updated: Jun 12, 2019, 11:50 PM IST
নীতীশকে শুভেচ্ছা মমতার; জবাব এল, বাংলাকে 'মিনি পাকিস্তান' বানাচ্ছেন
ফাইল চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জমানায় বাংলা 'মিনি পাকিস্তান'-এ পরিণত হচ্ছে। বিহারিদের তাড়িয়ে জায়গা দেওয়া হচ্ছে রোহিঙ্গাদের। এভাবেই তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগল এনডিএ শরিক জেডিইউ। 

বিহারে বিজেপির শরিক হলেও চারটি রাজ্যে আলাদা বিধানসভা ভোটে লড়াই করার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। জেডিইউ-র এহেন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু মমতার শুভেচ্ছা পেয়েও তোপ দাগতে ছাড়লেন না দলের মুখপাত্র অজয় অলোক। একটি সংবাদমাধ্যমে তিনি বলেন,''এনডিএ ছেড়ে চারটি রাজ্যে আলাদা লড়াই করতে চলেছে জেডিইউ। এতে খুশি হতেই পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এতে তাঁর অপরাধ ধামাচাপা পড়বে না। মিনি পাকিস্তান হওয়ার হাত থেকে রাজ্যকে বাঁচানো উচিত তাঁর''। 

অজয় আলোক আরও বলেন,''মমতার  রাজ্য থেকে বিহারিদের তাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর তাঁদের তাড়াচ্ছে বাঙালিরা নন, রোহিঙ্গারা''। উল্লেখ্য, জাতীয় দলের তকমা পেতে দিল্লি, ঝাড়খণ্ড, জম্মু-কাশ্মীর ও হরিয়ানা আলাদা লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জেডিইউ-র সর্বভারতীয় সভাপতি নীতীশ কুমার। এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন,'নীতীশ জি আলাদা লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ওনাকে অভিনন্দন জানাই।   

অতিসম্প্রতি বারাকপুরে জয় শ্রী রাম ধ্বনির মুখে পড়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গাড়ি থেকে নেমে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন, হিন্দিভাষী জনতার সকলেই বহিরাগত। তাঁদের রাজ্যে রেখেছেন তিনি। তৃণমূল নেত্রীর এহেন বক্তব্যের পর শুরু হয় বিতর্ক। 

আরও পড়ুন- মমতার বলা 'ব্যালেন্স'-র রণনীতিতে BJP-কে 'শান্তশিষ্ট' অভিযান করতে দিল পুলিস?