৯৬ সালে নরসিমার ছাঁচেই ১৯-এ মোদী হঠানোর কৌশল চন্দ্রবাবুর?

কুমারস্বামী-চন্দ্রবাবুর সাক্ষাতে ফিরে আসছে ১৯৯৬ সালের স্মৃতি

Updated: Nov 8, 2018, 07:43 PM IST
৯৬ সালে নরসিমার ছাঁচেই ১৯-এ মোদী হঠানোর কৌশল চন্দ্রবাবুর?

নিজস্ব প্রতিবেদন: ২০১৯ সালের আগে বিজেপি বিরোধী জোট গড়তে উঠেপড়ে লেগেছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। আর এবারও কি সেই ১৯৯৬ সালের ছাঁচ?  বৃহস্পতিবার বেঙ্গালুরুতে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচডি দেবগৌড়া ও তাঁর ছেলে তথা কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর সঙ্গে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সাক্ষাত্ উসকে দিল সেই জল্পনাই। দেবগৌড়া বলেন, ''২০১৯ সালে এনডিএ সরকারকে ফেলতে ধর্মনিরপেক্ষ সকল দলগুলিকে এক জায়গায় আনতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। আগামীর কৌশল নির্ধারণে ছেলে ও আমার সঙ্গে দেখা করেন উনি''।         

এর আগে দিল্লিতে এসে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে আলোচনা করে গিয়েছেন। তখনই চন্দ্রবাবু নাইডুকে রাহুল বার্তা দেন, অতীত ভুলে একসঙ্গে লড়াই করতে চান। কংগ্রেস বিরোধী হিসেবে পরিচিত চন্দ্রবাবু নাইডুও জানিয়ে আসেন, গণতন্ত্র রক্ষার লড়াইয়ে শক্তিশালী জোট গড়া দরকার। চলতি মাসের শুরুতে আপ সুপ্রিম অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদবের সঙ্গেও দেখা করেন চন্দ্রবাবু নাইডু।  

সদ্য কর্ণাটকে উপনির্বাচনে পাঁচটি আসনের মধ্যে চারটি জিতেছে কংগ্রেস-জেডিএস জোট। একমাত্র শিবমোগা আসনটি বাঁচাতে পেরেছে গেরুয়া শিবির। তিনটি লোকসভা আসনের মধ্যে ২টি জিতেছে জোট। এবং দুটি বিধানসভাও পকেটে পুরেছে রাহুল-কুমারস্বামীর জুটি। উল্লেখ্যযোগ্য ভাবে, বিজেপির দীর্ঘদিনের গড় রেড্ডি ভাইদের আস্তানা বেল্লারিতে হারের মুখ দেখতে হয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে কুমারস্বামীর সঙ্গে চন্দ্রবাবু নাইডুর মোলাকাত্ তাত্পর্যপূর্ণ তো বটেই। 

প্রসঙ্গত, অন্ধ্রপ্রদেশকে বিশেষ আর্থিক অনুদানের দাবি করেছিলেন চন্দ্রবাবু নাইডু। সেই দাবি না মানায় বিজেপির সঙ্গ ত্যাগ করেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে এক  ঢিলে দুই পাখি মারেন চন্দ্রবাবু। রাজ্যবাসীকে বুঝিয়ে দেন, রাজ্যের জন্য ক্ষমতাও ছাড়তে পিছপা হননা তিনি। দ্বিতীয় কারণ, মোদীর ছায়ার বাইরে বেরিয়ে নিজের সর্বভারতীয় রাজনৈতিক ভাবমূর্তি তৈরি। 

কুমারস্বামী-চন্দ্রবাবুর সাক্ষাতে ফিরে আসছে ১৯৯৬ সালের স্মৃতি। সে বছর অবিজেপি-অকংগ্রেসি দলের জোট গড়ে পিভি নরসিমা রাওকে ক্ষমতাচ্যুত করতে বড় ভূমিকা নিয়েছিল টিডিপি। লোকসভা ভোটে একসঙ্গে লড়াই করেছিল টিডিপি, জনতা দল ও সমাজবাদী পার্টি। ক্ষমতা হারানোর পর দেবগৌড়ার নেতৃত্বে সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কংগ্রেস। এবারও কি সেই চিত্রনাট্যই তৈরি করতে চলেছেন চন্দ্রবাবু নাইডু? ইতিহাস কি ফিরে আসবে? 

আরও পড়ুন- বুলেটের আগেই দৌড়বে দেশীয় প্রযুক্তির 'মিনি বুলেট ট্রেন'