আইসক্রিম ও ফলের রস বেচে মুখ্যমন্ত্রীর ছেলে 'ইনকাম' করল ৭.৫০ লাখ টাকা!

বাবা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। আর ছেলে কি না রাস্তায় দাঁড়িয়ে আইসক্রিম পার্লারে আইসক্রিম বিক্রি করছে! ফলের রস বিক্রি করছে! তেলাঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাওর ছেলে কে টি রামা রাও ঠিক এটাই করেছেন। শুধু যে করেছেন, তা-ই নয়। আইসক্রিম এবং ফলের রস বিক্রি করে সাড়ে ৭ লাখ টাকা 'ইনকাম' করেছেন তিনি। কিন্তু, মুখ্যমন্ত্রীর ছেলেকে হঠাত্ আইসক্রিম, ফলের রস এসব বিক্রি করতে হল কেন?

Updated By: Apr 15, 2017, 07:08 PM IST
আইসক্রিম ও ফলের রস বেচে মুখ্যমন্ত্রীর ছেলে 'ইনকাম' করল ৭.৫০ লাখ টাকা!

ওয়েব ডেস্ক : বাবা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। আর ছেলে কি না রাস্তায় দাঁড়িয়ে আইসক্রিম পার্লারে আইসক্রিম বিক্রি করছে! ফলের রস বিক্রি করছে! তেলাঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাওর ছেলে কে টি রামা রাও ঠিক এটাই করেছেন। শুধু যে করেছেন, তা-ই নয়। আইসক্রিম এবং ফলের রস বিক্রি করে সাড়ে ৭ লাখ টাকা 'ইনকাম' করেছেন তিনি। কিন্তু, মুখ্যমন্ত্রীর ছেলেকে হঠাত্ আইসক্রিম, ফলের রস এসব বিক্রি করতে হল কেন?

২১ এপ্রিল হায়দরবাদের কাছে কোমপল্লীতে হবে তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতির প্লেনারি। তারপর ২৭ এপ্রিল দলের প্রতিষ্ঠা দিবসে ওয়ারাঙ্গলে আয়োজন করা হয়েছে বড়সড় একটি জনসভার। দলীয় কর্মসূচির খরচ তুলতে ১৪ এপ্রিল থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত 'গুলাবি কুলি দিবস' পালনের ডাক দিয়েছেন তেলাঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। দলের সব বিধায়ক, মন্ত্রী এবং সদস্যদের কমপক্ষে দুদিনের জন্য 'কুলিগিরি' করতে হবে। তিনি নিজেও ২দিন 'কুলিগিরি' করবেন বলে সাফ জানিয়েছেন।

বাবা যখন এতকিছু করছেন, তখন ছেলে আর কি চুপ করে বসে থাকতে পারেন? শুক্রবার ছিল 'গুলাবি কুলি দিবস'-এর প্রথম দিন। আর প্রথমদিনেই কিস্তিমাত্ করল ছেলে। আইসক্রিম এবং ফলের রস বিক্রি করে মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যে দলীয় তহবিলের জন্য রামা রাও জোগাড় করেন সাড়ে ৭ লাখ টাকা। কুতুবুল্লাপুর এলাকায় আইসক্রিম পার্লার দেন রামা রাও। তাঁর কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা দিয়ে আইসক্রিম কেনেন তেলাঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতির সাংসদ মালা রেড্ডি। আরেক দলীয় নেতা কেনেন ১ লাখ টাকার আইসক্রিম। অন্যদিকে ফ্রুট জুস কর্নারেও দলীয় নেতাদের কাছে ফলের রস বিক্রি করে রামা রাও জোগাড় করেন ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা। পাশাপাশি, বাবার নির্দেশ পালন করে 'কুলিগিরি'ও করেছেন রামা রাও।

আরও পড়ুন, ২০ বছরের বেশি সময় ধরে এই রহস্য চেপে রেখেছিলেন মায়াবতী!