বুথ ফেরত্ সমীক্ষায় বিজেপির সংখ্যাগরিষ্ঠতার ইঙ্গিত মিলতেই শরিক সরানোর সিদ্ধান্ত যোগীর!

লোকসভা নির্বাচনে জোট নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টির সুপ্রিমো। রাজভড়ের স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, বিজেপির জোটে না থাকলে উত্তর প্রদেশের ৮০টি আসনেই প্রার্থী দেবে তারা

Updated By: May 20, 2019, 11:53 AM IST
বুথ ফেরত্ সমীক্ষায় বিজেপির সংখ্যাগরিষ্ঠতার ইঙ্গিত মিলতেই শরিক সরানোর সিদ্ধান্ত যোগীর!
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: ক্যাবিনেটে থেকেও সরকারের বিরুদ্ধে বরাবরই সরব থাকতে দেখা গিয়েছে সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টির সুপ্রিমো ও পি রাজভড়কে। গতকাল বুথফেরত্ সমীক্ষা বেরতেই বিজেপির শরিক ও পি রাজভড়কে তাড়ানোর জন্য তত্পর হল যোগী সরকার। ইতিমধ্যে রাজ্যপালের কাছে রাজভড়ের ইস্তফাপত্র গ্রহণের আর্জি জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, মাসেক খানেক আগেই মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দেন ও পি রাজভড়। কিন্তু সে সময় ইস্তফাপত্র গ্রহণ করা হয়নি। যোগী আদিত্যনাথের সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ইস্যুতে সরব ছিলেন রাজভড়। জানুয়ারি মাসে আদিত্যনাথকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে এক জনসভায় রাজভড় প্রশ্ন তোলেন, সাম্প্রদায়িক হিংসায় আম জনতার মৃত্যু হয়। কখনও শুনেছেন, নেতারা মারা গিয়েছে? রাজভড়ের বিস্ফোরক মন্তব্য, যাঁরা ধর্মের ভিত্তিতে হিংসা ছড়ান, তাঁদের গায়েই আগুন ধরিয়ে দিন। তখন ওরা বুঝবেন। উত্তর প্রদেশের জায়গার নাম বদলের সিদ্ধান্তেও জোরালো সওয়াল করেন তিনি। রাজভড়ের দাবি, মুখতার আব্বাস নাকভি, শাহনাওয়াজ হুসেনের মতো মুসলিম নেতাদের আগে নাম বদল করুক বিজেপি।

আরও পড়ুন- রাজধানীর ব্যস্ত রাস্তায় গ্যাংওয়ার, গুলিতে খুন ২

লোকসভা নির্বাচনে জোট নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টির সুপ্রিমো। রাজভড়ের স্পষ্ট জানিয়েছিলেন, বিজেপির জোটে না থাকলে উত্তর প্রদেশের ৮০টি আসনেই প্রার্থী দেবে তারা। জোটে থাকা না থাকা নিয়ে তাদের কিছু এসে যায় না। উল্লেখ্য, গত কাল বুথ ফেরত্ সমীক্ষায় জাতীয় স্তরে বিজেপির দারুণ ফল হওয়ার ইঙ্গিত পেয়েই শরিক দল সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টিকে মন্ত্রিসভা থেকে সরানোর সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন আদিত্যনাথ। এমনটাই মনে করা হচ্ছে।

তবে, সমীক্ষায় দেখা গেছে উত্তর প্রদেশে বিজেপির গড় আসন সংখ্যা কমছে। গতবার লোকসভা নির্বাচনে প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়া বসপা-সপার এবার জোট অনেকখানেই আসন বাড়াতে পারছে। তবে, কংগ্রেস সেখানে তথৈবচ। অমেঠি ও রায়বেরেলি ছাড়াও কংগ্রেস আর কোনও আসন পাচ্ছেনা বলে ইঙ্গিত বুথ ফেরত্ সমীক্ষায়।