PoK থেকে ডাক্তারি পাস করে এল এদেশে প্র্যাকটিস করা যাবে না, নির্দেশিকা MCI-এর

জম্মু ও কাশ্মীরের বহু ছাত্র ডাক্তারি পড়তে পাক অধিকৃত কাশ্মীর চলে যান। এদের মধ্যে অনেকেই আবার কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতবাদী নেতাদের সুপারিশে সেখানকার মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হন

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Aug 12, 2020, 09:16 PM IST
PoK থেকে ডাক্তারি পাস করে এল এদেশে প্র্যাকটিস করা যাবে না, নির্দেশিকা MCI-এর
ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিদেশ থেকে ডাক্তারি পাস করে ভারতে বহাল তবিয়তে চিকিত্সা করছেন বহু চিকিত্সক। ভারতের বহু ছাত্র চিন, বাংলাদেশ, নেপাল, রাশিয়া-সহ অন্যান্য দেশে ডাক্তারি পড়ছেন। সেখানে থেকে এমবিবিএস হয়ে মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার পরীক্ষায় পাস করলেই ভারতে চিকিত্সা করা অনুমতি পান। সেক্ষেত্রে এখন থেকে ব্যাতিক্রম হবে পাক অধিকৃত কাশ্মীর। সেখান থেকেও বহু ছাত্র ডাক্তারি পাস করে এদেশে প্র্যাকটিস করেন।

আরও পড়ুন-'সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করেই কি বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে কসাইয়ের কাজ চলছে!'  

মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার(এমসিআই) এক নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, পাক অধিকৃত কাশ্মীর থেকে কেউ ডাক্তারি পাস করে এলে এদেশে প্র্যাকটিস করতে পারবেন না।  মেডিসিনে পিওকে-র কোনও ডিগ্রিই ভারতে গ্রাহ্য হবে না।

এমসিআইয়ের তরফে সেক্রেটারি জেনারেল আর কে ভাট ওই নির্দেশিকায় জানিয়েছেন, 'জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ ভারতের অবিচ্ছেদ্দ অংশ। ভারতের একাংশ জোর করে দখল করে রেখেছে পাকিস্তান। তাই পাক অধিকৃত জম্মু-কাশ্মীরের কোনও মেডিক্যাল কলেজকে ভারতের মেডিক্যাল কাউন্সিলের ১৯৫৬ সালের আইন অনুযায়ী অনুমতি নিতে হবে।' নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, পাক অধিকৃত কাশ্মীরের কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ডাক্তারি ডিগ্রি ভারতের নথিভুক্ত করা যাবে না।

আরও পড়ুন-করোনায় প্রয়াত চিকিৎসক, হাসপাতালে বিল উঠেছে ১৯ লাখ! রিভিউয়ের আবেদন স্বাস্থ্য কমিশনের

এ ব্যাপারে জম্মু ও কাশ্মীরের মেডিক্যাল কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডা সালিম উর রহমান সংবাদমাধ্যমে বলেন, এমসিআইয়ের গাইডলাইন আমরা মেনে চলি। যে কেউ অন্য কোনও কাউন্সিল থেকে এলে তাকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ছাড়পত্র নিতে হবে। তার পর রেজিস্ট্রেশন হবে।

উল্লেখ্য, জম্মু ও কাশ্মীরের বহু ছাত্র ডাক্তারি পড়তে পাক অধিকৃত কাশ্মীর চলে যান। এদের মধ্যে অনেকেই আবার কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতবাদী নেতাদের সুপারিশে সেখানকার মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হন। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে জম্মু-কাশ্মীরের পড়ুয়াদের জন্য আসন সংরক্ষিত থাকে।