কাশ্মীর নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘে প্ররোচনামূলক মন্তব্য তুরস্কের, এরদোগানকে পাল্টা তুলোধনা করল ভারত

এরদোগান এর আগে, কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদের সময়ে ভারতের বিরোধিতা করেছিলেন

Edited By: সিকান্দর আবু জ়াফর | Updated By: Sep 23, 2020, 02:22 PM IST
কাশ্মীর নিয়ে রাষ্ট্রসঙ্ঘে প্ররোচনামূলক মন্তব্য তুরস্কের, এরদোগানকে পাল্টা তুলোধনা করল ভারত
ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন: কাশ্মীরে ফের মাথা গলানোর চেষ্টা করল তুরস্ক। পাল্টা দিল ভারতও।

কী বলেছিলেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান? রাষ্ট্রসঙ্ঘের সভায় তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার শান্তি ও সুস্থিতির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কাশ্মীর ইস্যু। আলোচনার মাধ্যমে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করা উচিত। রাষ্ট্রসঙ্ঘে আইনের আওতায় আমরা কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের পক্ষে। কাশ্মীরের মানুষও শান্তি চায়।

আরও পড়ুন-'অব তক ছাপ্পান্ন' লক্ষ দেশের মোট করোনার সংখ্যা, সুস্থতার হার ৮১ শতাংশ

রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় তু্র্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগানের ওই মন্তবের পরই এর পাল্টা জবাব দেন রাষ্ট্রসঙ্ঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস ত্রিমূর্তি। টুইটারে তিনি লেখেন, জম্মু ও কাশ্মীর নিয়ে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের মন্তব্য শুনেছি। এই ধরনের মন্তব্য ভারতের একেবারে নিজস্ব ব্যপারে হস্তক্ষেপ করার সামিল। অন্য কোনও দেশের সার্বভৌমত্বকে সম্মান করতে শেখা উচিত তুরস্কের। পাশাপাশি নিজেদের দেশের নীতি কী হবে তাও ঠিক করা উচিত।

আরও পড়ুন-TIME ম্যাগাজিনে দুনিয়ার ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় নমো

উল্লেখ্য, কয়েক বছর ধরেই বিভিন্ন মঞ্চে কাশ্মীর ইস্যু তোলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে তুরস্ক। কিন্তু পশ্চিম এশিয়ার দেশগুলিকে ভারত বরাবরই বলে আসছে, কাশ্মীর একেবারেই ভারতের নিজস্ব বিষয়। এখানে কারও হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করা হবে না। গত সপ্তাহেও হিউম্যান রাইটস কাউন্সিলের সভায় ভারতের নিজস্ব ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না কারা ব্যাপারে পাকিস্তান, তুরস্ক ও ওআইসিকে সতর্ক করে ভারত। এরদোগান এর আগে, কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদের সময়ে ভারতের বিরোধিতা করেছিলেন, দিল্লি হিংসার সময়েও তিনি ওই হাঙ্গামার দায় হিন্দুদের বলে মন্তব্য করেছিলেন।