মর্মান্তিক! মা-বোনের কাঁধে চেপে বাড়ি ফিরল জওয়ান, তিন মাসের মেয়ে করল মুখাগ্নি

১২ হাজার ফুট উচ্চতায় -৩০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় রঞ্জিত ডিউটি করছিলেন। 

Updated By: Jan 18, 2020, 11:38 AM IST
মর্মান্তিক! মা-বোনের কাঁধে চেপে বাড়ি ফিরল জওয়ান, তিন মাসের মেয়ে করল মুখাগ্নি

নিজস্ব প্রতিবেদন : রঞ্জিত সিং সলারিয়া। ভারতীয় সেনার ৪৫ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস-এর জওয়ানের জন্য চোখের জল ফেললেন হাজার হাজার মানুষ। একজন মায়ের জীবনেও এর থেকে কষ্টের মুহূর্ত হয়তো আর নেই। মায়ের কাঁধে চেপে বাড়ি ফিরল ছেলের নিথর দেহ। ১৩ জানুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের মাছিল সেক্টরে শহিদ হন রঞ্জিত। এদিন তাঁর দেহ ফিরল বাড়িতে। মা ও বোনের কাঁধে চেপে। এমন মর্মান্তিক দৃশ্য দেখে চোখের জল ধরে রাখতে পারলেন না স্থানীয় মানুষ। বিদায় বেলায় রাজকীয় সম্মান পেলেন ভারতীয় সোর এই জওয়ান। কিন্তু পরিবারের মানুষদের কান্না ও আর্তনাদ সব কিছুকে ছাপিয়ে গেল।

১২ হাজার ফুট উচ্চতায় -৩০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় রঞ্জিত ডিউটি করছিলেন। আচমকা তুষারধসের মাঝে পড়েন তিনি। জীবন বলিদান দেন রঞ্জিত। শ্রীনগর থেকে বিশেষ বিমানে তাঁর দেহ আনা হয় বাড়িতে। তিরঙায় মুড়ে রঞ্জিত যখন বাড়িতে ফেরেন তখন পরিবারের লোকজন মুষড়ে পড়েছিলেন। রঞ্জিতের গ্রাম সিদ্ধপুরের মানুষ রঞ্জিতের জন্য চোখের জল ফেলেন। কান্নায় ভেঙে পড়েন রঞ্জিতের স্ত্রী। মা রীনা দেবী, বাবা হরবংশ সিং, স্ত্রী দিয়া ও বোন জীবন জ্যোতির আর্তনাদের মাঝেই বিদায় নিলেন ভারতীয় সেনার জওয়ান। বারবার জ্ঞান হারাচ্ছিলেন রঞ্জিতের স্ত্রী দিয়া।

আরও পড়ুন-  পাকিস্তান থেকে আসা শরণার্থী এবার ভারতের গ্রামে পঞ্চায়েত প্রধান

মা ও বোনের কাঁধে চেপেই শেষযাত্রায় গেলেন রঞ্জিত। গত বছর অক্টোবরেই কন্যা সন্তানের বাবা হয়েছিলেন রঞ্জিত। এদিন সেই তিন মাসের মেয়েই বাবার মুখাগ্নি করল। মেয়েকে পরী বলে ডাকতেন রঞ্জিত। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে শোকে পাথর হয়েছেন রীনা দেবী। সারা গ্রামে যেন অন্ধকার ছেয়ে রয়েছে।