বিয়ের আগে পুরুষের ধর্ম, জীবিকা, উপার্জন হবু বউকে জানাতে হবে, আইন আনছে অসম সরকার!

বিজেপি মন্ত্রী দাবি করেছেন, মহিলাদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা প্রদানে অসম সরকার বদ্ধপরিকর।

Updated By: Dec 1, 2020, 11:59 AM IST
বিয়ের আগে পুরুষের ধর্ম, জীবিকা, উপার্জন হবু বউকে জানাতে হবে, আইন আনছে অসম সরকার!

নিজস্ব প্রতিবেদন- বিয়ের আগে ছেলেদের ধর্ম, উপার্জন ও কাজ সম্পর্কে হবু বউকে জানাতে হবে। এবার এমনই আইন আনছে অসম সরকার। এই ব্যাপারে আগাম জানিয়ে রাখলেন অসমের মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। লভ জিহাদের একের পর এক ঘটনায় জেরবার অসম। তাই এবার আইন করে লভ জিহাদ রোখার পথে নামবে অসম সরকার। জানিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যে এই আইন প্রনয়ণের ব্যাপারে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে অসম সরকার। এদিন সে কথাও জানালেন তিনি। বিজেপি মন্ত্রী দাবি করেছেন, মহিলাদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা প্রদানে অসম সরকার বদ্ধপরিকর। আর তাই নতুন আইন প্রনয়ণ করা হবে।

হিমন্ত বিশ্বশর্মা বলেছেন, ''স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কোনও লুকোচুরি থাকা ঠিক নয়। আমরা তো শুধু ধর্ম নিয় কথা বলছি না। জীবিকা নির্বাহ করতে একজন পুরষ কী করেন, তার মাসিক উপার্জন কত, এসব তথ্য স্ত্রীর জানার অধিকার আছে। লভ জিহাদ এখন একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে আমরা শুধু লভ জিহাদ রুখতে এই আইন প্রনয়ণ করছি না। এই আইন মহিলাদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করবে। আবার মহিলাদের সামাজিক সুরক্ষাও বজায় থাকবে। স্বামী ও স্ত্রী পরস্পরকে নিজেদের ব্যাপার সব কিছু জানিয়ে বিয়ে করলে স্বচ্ছতা বজায় থাকবে।''

আরও পড়ুন-  প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছেন! শেলা রশিদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তাঁর বাবার

হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, অসম সরকার মহিলাদের সামাজিক দিক থেকে এগিয়ে নিয়ে যেতে অরুণোদয় প্রকল্প চালু করবে। যে সব মহিলারা একার হাতে সংসার চালান, তাঁদের আর্থিক সাহায্য করবে রাজ্য সরকার। প্রতি মাসে চিহ্নিত মহিলাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৮৩০ টাকা করে দেবে সরকার। ওষুধ বা শাকসবজি, চাল, ডাল কিনতে সেই টাকা ব্যবহার করতে পারবেন মহিলারা। এমনকী বিশেষভাবে সক্ষম মানুষরাও এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন বলে জানিয়ছেন তিনি।