বাঁকুড়া, ভোপালের পর ছত্তিসগড়েও মামলার জালে উদয়ন

বাঁকুড়া, ভোপালের পর ছত্তিসগড়েও এবার আরও মামলার জালে উদয়ন। রায়পুর পুলিস তার বিরুদ্ধে পৃথক দুটি FIR দায়ের করতে চলেছে। একদিকে রয়েছে, ভুয়ো নথি দিয়ে বাবা-মায়ের ডেথ সার্টিফিকেট তৈরির অভিযোগ। অন্যদিকে, ব্যাঙ্কে ভুয়ো নথি পেশ করে পেনশনের টাকা তোলারও অভিযোগ।

Updated By: Feb 7, 2017, 11:46 AM IST
বাঁকুড়া, ভোপালের পর ছত্তিসগড়েও মামলার জালে উদয়ন

ওয়েব ডেস্ক: বাঁকুড়া, ভোপালের পর ছত্তিসগড়েও এবার আরও মামলার জালে উদয়ন। রায়পুর পুলিস তার বিরুদ্ধে পৃথক দুটি FIR দায়ের করতে চলেছে। একদিকে রয়েছে, ভুয়ো নথি দিয়ে বাবা-মায়ের ডেথ সার্টিফিকেট তৈরির অভিযোগ। অন্যদিকে, ব্যাঙ্কে ভুয়ো নথি পেশ করে পেনশনের টাকা তোলারও অভিযোগ।

আরও পড়ুন মাছ-ভাত খাব, লক আপে বসেও সিরিয়াল কিলারের বায়নাক্কা

এই তদন্তে রায়পুর পুলিসের দুটি আলাদা টিম গঠন করা হয়েছে। একটি টিমকে পাঠানো হচ্ছে হোসেঙ্গাবাদে, যেখান থেকে ডেথ সার্টিফিকেট ইস্যু হয়। দু হাজার তেরোয় হোসেঙ্গাবাদের ইটারসি মিউনিসিপ্যালিটির ডেথ রেজিস্ট্রারে একানব্বই নম্বরে নাম রয়েছে উদয়নের মা ইন্দ্রাণী দাসের। মৃত্যুর স্থান দেখানো হয়েছে ইটারসির গান্ধীনগর। নিজের হাতে ডেথ সার্টিফিকেটও নেয়নি উদয়ন। মণীশ ঠাকুর নামে এক ব্যক্তির হাতে দেওয়া হয় সার্টিফিকেট। শুধু মৃত্যু নয়, জীবন নিয়েও চলে খেলা। মায়ের ই-মেল আইডি ব্যবহার করে, ব্যাঙ্কে লাইফ সার্টিফিকেটের ভুয়ো মেল করে উদয়ন। দু হাজার পনের পর্যন্ত মায়ের নামে মাসে আঠাশ হাজার টাকা করে পেনশনও তোলে সে। ব্যাঙ্কে উদয়ন জানায়, মা আমেরিকায় থাকায় নিজে আসতে পারছেন না। পরে রায়পুর থেকে পেনশন অ্যাকাউন্টটাই ভোপালের ব্রাঞ্চে ট্রান্সফার করিয়ে নেয় উদয়ন।

আরও পড়ুন আনলিমিটেড ভয়েস কলের দারুন অফার BSNL-র

তদন্তে বড় প্রশ্ন, কোনওকিছু খতিয়ে না দেখেই কীভাবে ডেথ সার্টিফিকেট ইস্যু হল? কোন কোন সরকারি আধিকারিক এই গোটা ঘটনার সঙ্গে যুক্ত? তাও নজরে পুলিসের।